Tepantor

সৎ মা’য়ের সহযোগীতায় কিশোরীকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

২২ এপ্রিল, ২০২২ : ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ ৬৫৩

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে সৎ মায়ের সহযোগীতায় ১৬ বছরের এক কিশোরীকে অন্য লোক দিয়ে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। গত ২০ এপ্রিল বুধবার ভোরে চান্দুরা ইউনিয়নের আব্দুল্লাহ পুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এঘটনায় ২১ এপ্রিল মেয়ের ভাই মুছা মিয়া বাদী হয়ে বিজয়নগর থানায় মামলা করার জন্য এজাহার জমা দিয়েছেন। ঘটনার স্বীকার পায়েল (ছদ্মনাম) ২১ এপ্রিল ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

মামলার আসামীরা হলো, আব্দুল্লাহ পুর গ্রামের মৃত আব্দুল মন্নাফের ছেলে মাবুব মিয়া (৪০), মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে আবুল ইসলাম (৪৮), মৃত হাজী মতি মিয়ার ছেলে আব্দুল্লাহ মিয়া (৪৫), ও ইয়াসীন মিয়ার স্ত্রী ও মেয়েটির সৎ মা কুলসুম বেগম (৩৫)। এর মধ্যে ১ নম্বর আসামী মাহবুব মিয়ার বিরুদ্ধে ২০২০ সালে ৯ নভেম্বরের বলৎকার মামলাও আছে।

থানায় জমা দেওয়া এজাহার থেকে জানা যায়, পায়েলের বাবা-মায়ের মধ্যে প্রায় ১ যুগ আগে ডিভোর্স হয়। পরে তার বাবা ইয়াসিন ২য় বিয়ে করেন। পায়েল তার সৎ মা কুলসুম বেগমের সাথেই থাকেন। তাই অপ্রাপ্ত বয়সে পায়েলকে বিয়ে দেওয়ার জন্য কয়েক বার চেষ্টাও করেছিলো।
ঘটনার দিনে পায়েলের সৎ মা কুলসুম পায়েলকে গরুর গোবর আনতে প্রতিবেশী মাহবুব মিয়ার বাড়িতে পাঠান। মাহবুব মিয়ার বাড়িতে যাওয়ার পর তার সৎ মা কুলসুমের পরিকল্পনায় মাহবুব সহ কয়েকজন তাকে জোর করে ধরে মাহবুবের গরুর ঘরে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। তখন পায়েলের চিৎকারে তার ভাই মুছা ও অন্যান্যরা ঘটনাস্থলে এসে পায়েলকে উদ্ধার করে। পরে তাকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এবিষয়ে বিজয়নগর থানার ওসি মির্জা মোহাম্মাদ হাসান বলেছেন, থানায় এজাহার জমা হয়েছে, এখনো মামলা হয়নি। ২ দিন আগের ঘটনা, তাই আমি ২২ এপ্রিল নিজে ঘটনাস্থলে যাবো। তারপর হয়ত মামলা গ্রহন হবে।

Tepantor

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।