Tepantor

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা

২২ মে, ২০২২ : ১০:৩৭ অপরাহ্ণ ১৬৩৯

তেপান্তর রিপোর্ট: ‘চাঁদাবাজি ও দখলবাণিজ্যে জড়িত আনারকলি’-শিরোনামে সময় টিভিতে খবর প্রচারের প্রেক্ষিতে ওই টিভির সাংবাদিক ও আরো ২ সাংবাদিকসহ মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। চাঁদাবাজি ও মানহানির অভিযোগ এনে রোববার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের কোষাধ্যক্ষ আনারকলি। মামলার আইনজীবি মো: সাইফুল ইসলাম জানান, আদালত মামলাটি তদন্তের জন্যে আশুগঞ্জ থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন। মামলার আসামীরা হচ্ছেন আশুগঞ্জের চরচারতলার টেকপাড়ার মৃত দানু মিয়ার ছেলে যায়যায়দিনের আশুগঞ্জ প্রতিনিধি সাদেকুল ইসলাম সাচ্চু(৪০),কেচকিবাড়ির মৃত ফাইজুরের ছেলে নূরুল্লাহ(৩৫),জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে মাহবুব,জিল্লু মিয়ার ছেলে সালমান(২৫),ঢাকার ডাক পত্রিকার ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি যাত্রাপুর গ্রামের হাসান জাবেদ(৩০) ও সময় টিভির ব্রাহ্মণবাড়িয়া ব্যুরো প্রধান উজ্জল কুমার চক্রবর্তী(৪২)।

মামলার এজাহারে অভিযোগ করা হয়, আশুগঞ্জের সোনারামপুর মৌজায় জেএল-১৩,খতিয়ান নং -৫/১,বিএস দাগ নং ১৮৭১ এর মোট ১১৮৮ বর্গফুট ভূমি গত ১১ই এপ্রিল রেলওয়ের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে যথাযথ প্রক্রিয়ায় বানিজ্যিক ভিত্তিতে বন্দোবস্ত নেন আনারকলি। এরপর সেখানে কাজ শুরু করলে চাদাবাজি,মাদক ব্যবসা ও হত্যাকান্ডে জড়িত এই আসামীরা তার কাজে বাধা প্রদান করতে শুরু করে। গত ১৪ই মে ঘটনাস্থলে এসে হত্যার হুমকী দিয়ে ৫ লাখ টাকা চাদা দাবী করে। চাদা না দিলে কাজ বন্ধ করে দেয়ার হুমকী দেয়।

বাদী আনারকলি বলেন, আমি চাদাবাজ,টিভি সাংবাদিককে এই অভিযোগ প্রমান করতে হবে। কোথায় আমি চাদাবাজি করেছি সেটি তাকে জানাতে হবে। আমার বিরুদ্ধে কয়টি চাদাবাজির মামলা আছে তা বের করে দিতে হবে। আমি বৈধভাবে রেলওয়ে ভূমি বন্দোবস্ত এনেছি। সে এই কাগজপত্র না দেখে চাদা না পাওয়ার ক্ষোভে আমার বিরুদ্ধে যা খুশি রিপোর্ট বানিয়েছে এবং প্রচার করেছে। আমার জীবন বিপন্ন করার জন্যে এই রিপোর্ট করা হয়েছে। আমি আমার অভিযোগের সুষ্টু তদন্ত এবং দোষীদের বিচার দাবী করছি।

এবিষয়ে মামলার আসামী সাংবাদিক সাদেকুল ইসলাম সাচ্চু তার বিরুদ্ধে আনীত সব অভিযোগ অস্বীকার করে তেপান্তরকে বলেন, আনারকলি ২০২০/২১ সালের জন্য জায়গা বন্দেবস্ত করেছিলো। কিন্তু ২০২২ সালের জন্য নয়। এমন কোন কাগজ সে দেখাতে পারবেনা। সে জোর করে রেলওয়ের জায়গা দখল করেছে। এবং মামলার বাকি আসামী যাদেরকে আমার সঙ্গী বলা হয়েছে তাদের নামে কোথাও কোন মামলা নেই। তারা খারাপ মানুষ নয়। বরং আনারকলি নিজেই একজন বিতর্কিত মানুষ। সময় টিভির সাংবাদিক উজ্জল চক্রবর্তী নিউজের কাজে আশুগঞ্জ এসেছিলো এবং তখন আমার হেল্প চাইলো তাই আমি সাথে গিয়েছি। তার মানে এই নয় যে, ওই সাংবাদিককে আমি নিউজ করানোর জন্য নিয়ে গেছি। দূর থেকে কোন সাংবাদিক আসলে আমরা স্থানীয়রা হেল্প করি, এটা খারাপ কিছু নয়।

এসকে

Tepantor

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।