Tepantor

সিলেটের বন্যার্তদের পাশে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাতিঘর’

২২ জুন, ২০২২ : ২:১৮ অপরাহ্ণ ৪৮

তেপান্তর রিপোর্ট: স্মরণকালের ভয়াবহ বন্যার কবলে পড়েছেন সিলেটবাসী। সেখানকার প্রতিটি জেলার একেকটি উপজেলা পরিণত হয়েছে বিচ্ছিন্ন দ্বীপে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক লাখ মানুষ। অনেকেই সিলেটের বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। বানভাসি মানুষের জন্য ট্রাকভর্তি খাবার নিয়ে সিলেটে বিতরণ করেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাতিঘর। সিলেট বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত অর্ধশতাধিক পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার ও ওষুধপত্র সহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

Tepantor

সিলেট মহানগরীর ঘাসিটুলাস্থ ইউসেপ বাংলাদেশ পরিচালিত ইউসেপ ঘাসিটুলা টেকনিক্যাল স্কুল সেন্টার ইনচার্জ এসএম আবু জাফর সিদ্দিকী ও স্কুলের সহকারী শিক্ষকা শাহিদা জামান, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদ, জাগো নিউজের ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি আবুল হাসনাত মো. রাফি, ইত্তেফাকের রিপোর্টার ইফতেয়ার রিফাত, ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাতিঘরের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার আজহার উদ্দিন, বাতিঘরের সদস্য রাকিবুল ইসলাম, আশিকুল ইসলাম আশিক, আরমান আদনান, আরিয়ান নাঈম, মো. সামছুল হক, নজরুল ইসলাম নাঈম, হাফিজুর রহমান হামিম প্রমূখ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাতিঘর অজ্ঞাতনামা ও পরিচয়হীন বেওয়ারিশ লাশ দাফনের কাজ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বেশ প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন।

এতিমধ্যে তারা ৪৮ বেওয়ারিশ লাশ দাফন কাজ সম্পন্ন করেছে। তারা প্রায়ই সাড়ে ৬ হাজার রোগীকে স্বেচ্ছায় রক্তদান করা ছাড়াও ব্রাহ্মণবাড়িয়া বাতিঘর অক্সিজেন সেবা ও টেলি-মেডিসিন সেবা দিয়ে যাচ্ছে। মানবিক ও সমাজসেবা কাছেও বাতিঘর অনেক এগিয়েছে। তারা উৎসবে উপহার সরূপ সমাজের হতদরিদ্র ও অসহায় পরিবারের মাঝে খাদ্য ও বস্ত্র দিয়ে সহায়তায় করেছেন।

Tepantor

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।