সর্ব্ব ধর্ম্ম মিশন বাংলাদেশের শত বছর পূর্তিতে তিনদিন ব্যাপী জমকালো অনুষ্ঠানের উদ্বোধন

২১ ডিসেম্বর, ২০১৯ : ৮:৪৬ অপরাহ্ণ ২৫৬

মোঃ সফর মিয়া: সর্ব্ব ধর্ম্ম মিশন বাংলাদেশের ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ভোলাচং গ্রামে আজ থেকে তিনদিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানমালা শুরু হয়েছে। আজ শনিবার সকালে ভোলাচংয়ে সর্ব্ব ধর্ম্ম মিশনের প্রধান কার্যালয়ের বিশাল প্যান্ডেলে জমকালোভাবে অনুষ্ঠিত তিনদিনব্যাপী বিশাল ওই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন মিশনের প্রেসিডেন্ট সন্তোষ কুমার পাল।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম। এতে মূখ্য আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট ধর্মালোচক অধ্যাপক শ্যামা প্রসাদ ভট্টাচার্য। আলোচনায় অংশ নেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার (নবীনগর সার্কেল) মেহেদী হাসান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইকবাল হাসান, ওসি রনোজিত রায়, নবীনগর প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহাবুব আলম লিটন, কালের কণ্ঠের জেলা প্রতিনিধি বিশ্বজিৎ পাল বাবু, নবীনগর প্রতিনিধি গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু, আত্মীয়ের প্রতিষ্ঠাতা, সমাজকর্মী সমীর চক্রবর্তী, ইউপি চেয়ারম্যান শাহীন সরকার, মিশনের সেক্রেটারী সন্তোষ পাল প্রমুখ। ইন্দ্রাণী দেবনাথের প্রাণবন্ত সঞ্চালনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মিশনের কোষাধ্যক্ষ জগদীশ সাহা।
শত বছর পূুর্তি উপলক্ষে অনুষ্ঠানে কালের কণ্ঠের নবীনগর প্রতিনিধি গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু সহ ১৫ জন বিশিষ্ট জনকে ‘গুণীজন সম্মাননা’ প্রদান করা হয়। এর আগে সর্বধর্ম সঙ্গীত ও মলয়া গানের উপর এক আকর্ষণীয় সঙ্গীত প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আগত অর্ধশত প্রতিযোগি দুটি গ্রুপে অংশ নেয়। পরে প্রধান অতিথি বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরণ করেন। এছাড়া শতবছর পূর্তিতে এলাকার গরীব ও অসহায় মানুষের মাঝে আয়োজকদের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। পরে মলয়া গানের আসরে বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করেন।
ভারত সহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে দয়াময় নামের শত শত অনুসারী ভক্তবৃন্দকে এ মহোৎসবে যোগ দিতে দেখা গেছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।