লেবাননের বৈরুত বাংলাদেশি বাজার পরিদর্শনে রাষ্ট্রদূত মান্যবর আ: মোতালেব সরকার

২৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ : ১০:৪৭ অপরাহ্ণ ১৭০

মনির হোসেন রাসেল,লেবানন প্রতিনিধি::
লেবাননের রাজধানী বৈরুতের খোলা বাজার “সাবরা” মার্কেট পরিদর্শন করেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মান্যবর আব্দুল মোতালেব সরকার। রোববার সকালে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই তিনি এই বাংলাদেশি ব্যবসায়ী অধ্যুষিত সাবরা বাজারে উপস্থিত হন মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার। উনার এমন আগমনে উপস্থিত বাংলাদেশিদের মধ্যে বেশ চাঞ্চল্য বিরাজ করে। অনেকে প্রথমে ধারণা করেছিলেন তিনি বাজার করতে এসেছেন। কিন্তু পরে ভুল ভাঙে যখন সবাই জানতে পারেন তিনি প্রবাসীদের খোঁজ-খবর নিতে আসেন।

বাংলাদেশি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা এই বাজারেই সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করেন। ব্যবসায়ীদের নানা পণ্যের স্থায়ী ও অস্থায়ী সহ প্রায়
৫০/৬০ টির বেশি দোকান রয়েছে এখানে। সাপ্তাহিক ছুটির দিনে লেবাননের নানা প্রান্ত থেকে সবজি, মাছসহ অন্যান্য কাঁচামাল নিয়ে অস্থায়ী দোকান সাজিয়ে এখানে বসেন প্রবাসীরা।

প্রতি সপ্তাহের শনিবার দুপুর ২টার পর থেকে এবং রোববার পুরো দিন সাপ্তাহিক ছুটিতে সাবরা বাজার থাকে জমজমাট। সাপ্তাহিক ছুটির অবসরে দূরদূরান্ত থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ছুটে আছেন তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে।

এই সময় হাজার হাজার প্রবাসীর পদচারণায় মুখরিত থাকে পুরো বাজার। বেচা-কেনাই শুধু নয় সাপ্তাহিক বাজারকে ঘিরে বাংলাদেশিদের মিলন-মেলায় রূপ নেয় সাবরা। যেন প্রবাসে এক খন্ড বাংলাদেশ।
এ সময় রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে ছিলেন প্রথম সচিব (শ্রম) আব্দুল্লাহ আল মামুন, তৃতীয় সচিব আব্দুল্লাহ আল সাফিসহ বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তারা।

রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার এ সময় পুরো বাজার ঘুরে দেখেন এবং সকলের সাথে মত বিনিময় করেন। তিনি প্রবাসীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। তিনি ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী এবং বাজার করতে আসা প্রবাসী বাংলাদেশিদের সঙ্গে খোলা মনে কথা বলেন এবং তাদের অভিযোগগুলো মনোযোগ দিয়ে শোনেন।

ব্যবসায়ীদের কয়েকজন রাষ্ট্রদূতকে জানান, সাবরা বাজারের মাঝে মাঝে চলা পুলিশি অভিযানের সময় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের নানা দুর্ভোগে পড়তে হয়। সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে শান্তিপূর্ণভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য করার সুযোগ করে দেওয়ার অনুরোধ জানান তারা।

রাষ্ট্রদূত লেবাননের সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করে ব্যবসায়ীদের দুর্ভোগ নিরসনের সব ধরনের চেষ্টা করবেন বলে আশ্বস্ত করেন।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।