কসবায় নিখোঁজের পর সেপটিক ট্যাংক থেকে গলাকাটা লাশ উদ্ধার

২ জানুয়ারি, ২০২০ : ২:৫২ অপরাহ্ণ ৭৯৬

তেপান্তর রিপোর্ট : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় নিখোজের ৪দিন পর টয়লেটের সেপটিক ট্যাংক থেকে ছাইদুর রহমান নামে এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত ২৯ডিসেম্বর রাত ৮টায় কসবা পৌর এলাকা কাঞ্চনমুড়ি গ্রামের ছাইদুর রহমান(১৯) নিজ ঘর থেকে বাহির হয়ে নিখোজ হোন। বহু খোঁজাখোঁজি করে না পেয়ে মা হনুফা বেগম গত ৩১ডিসেম্বর কসবা থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেন। যার নং ১৩২৫।
পরে আজ ২ জানুয়ারী বৃহম্পতিবার সকালে কাঞ্চনমুড়ি ড্রেজার মাঠের এক পাশে বাথরুমের সেপটিক ট্যাংকের ভিতরে একটি লাশ দেখে আত্বচিৎকার করলে মানুষ জমায়েত হয়।
কসবা থানা পুলিশ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে ট্যাংকির ভিতর থেকে গলাকাটা অবস্থা ছাইদুর রহমানের মরা দেহ উদ্ধার করেন। নিহত ছাইদুরের বাবা হুমায়ন কবীর,মা হনুফা বেগমসহ গ্রামবাসীর কান্না রোল পড়ে। কসবা সার্কেল এ এসপি আব্দুল করিম,কসবা থানা তদন্ত অফিসার আসাদুল ইসলাম,উপ পুলিশ পরির্দশক হারুনুর রশীদ সহ পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। কসবা থানা পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত আসাদুল ইসলাম সাংবাদিকদেরকে বলেন,ছাইদুর রহমানকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তর জন্য জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্তক্রমে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি টেলিভিশন সাংবাদিকদেরকে জানান। নিহত ছাইদুর রহমান একজন সিএনজি চালক। তার মৃত্য রহস্য জানা যায়নি।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।