তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে নাটাই ইউনিয়নে দফায় দফায় সংঘর্ষ

২ জানুয়ারি, ২০২০ : ৬:২২ অপরাহ্ণ ১১২৫

কাজী আশরাফুল ইসলাম: ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদরের ৮ নং নাটাই উত্তর ইউনিয়নের নাটাই এবং ভাটপাড়া গ্রামের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছে। গত বুধবার থেকে এই সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষ চলাকালীন দুই গ্রামেরই বাড়িঘরে ব্যাপক ভাঙচুর এবং অগ্নিসংযোগ করা হয়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত উভয় পক্ষের প্রায় অর্ধ-শতাধিক লোক আহত হয়েছে। আহতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এখনো থেমে থেমে সংঘর্ষ চলছে।এলাকায় বিপুল পরিমাণে পুলিশ মোতায়েন থাকলেও তারা সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, গত পরশুদিন ভাটপাড়া গ্রামের মনির হোসেন(৫০) এর সাথে নাটাই গ্রামের মৃত মলাই মিয়ার ছেলে ইয়ামিন মিয়ার(২০) কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে মনির হোসেন এর পক্ষের লোকজন ইয়ামিন মিয়াকে মারধোর করে।গুরুতর আহত অবস্থায় ব্রাহ্মনবাড়িয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।ইয়ামিন মিয়ার আহত হওয়ার খবর মুহুর্তের মধ্যেই নাটাই গ্রামে ছড়িয়ে পড়লে দুই পক্ষই দা,বল্লম,কুড়াল,টেটাসহ দেশীয় অস্ত্রসহ নিয়ে গতকাল সন্ধায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে সদর থানা থেকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।এইসময় বেশ কয়েকটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করা হয়।ফায়ারসার্ভিসের দুটি ইউনিট আধা ঘন্টা চেস্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।সেই ঘটনার জের ধরে আজ সকালে দুই পক্ষ পুনরায় সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে । সকাল থেকে সন্ধা পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ চলতে থাকে।এতে পুলিশ সহ দুপক্ষেরই প্রায় অর্ধশতাধিক নারী-পুরুষ আহত হয়।বর্তমানে এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে। এখন পর্যন্ত উভয়পক্ষের ৫ জন দাঙ্গাবাজকে আটক করা হয়েছে।দু’পক্ষই মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

ব্যাস্ততার কারনে এবিষয়ে কোন পুলিশ কর্মকর্তা বক্তব্য দিতে পারেননি।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।