নবীনগরে ছেলের এসএসসি পরিক্ষার সিট দেখতে গিয়ে লাশ হলেন বাবা

২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ : ১০:১৫ অপরাহ্ণ ৬০৫

মোঃ সফর মিয়া,নবীনগর প্রতিনিধি::ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার সলিমগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ছেলের পরীক্ষার সিট একেবারে পিছনে পরায় সিট পরিবর্তন করার উদ্দেশ্যে গিয়ে স্কুলের নামফলক ভেঙ্গে বাবার মৃত্যু হয়েছে।আজ রবিবার বিকালে মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটে। তিনি মুক্তারামপুর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পরিবার পরিকল্পনা কর্মী খোরশেদ মিয়া। মাথায় প্রচন্ড আঘাতের কারনে তিনি ঘটনাস্থলে ই মৃত্যুবরণ করেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,মুক্তারামপুর গ্রামের মধ্য পাড়ার মোঃ খোরশেদ মিয়া ছেলের পরীক্ষার আসন দেখতে গিয়ে স্কুলের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ অবস্হা দেখতে পান।তখন তাদের সহযোগিতা করার জন্য মু্ক্তারামপুরের আঃ বাতেনের ছেলে অমিত হাসান দেয়াল টপকে ভিতরে প্রবেশ করে গেইট খোলার জন্য গেটে ধাক্কাধাক্কির এক পর্যায়ে গেইটের উপরে নিম্নমানের কাজ করা স্কুলের নামফলকটি ভেঙ্গে নিচে দাড়িয়ে থাকা খোরশেদ মিয়ার মাথায় পরে তার মগজ বের হয়ে আসলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।পাশে দাড়িয়ে থাকা তার ছেলে এসএসসি পরিক্ষার্থী আমিনুল ইসলামও সামান্য আহত হন।এ ঘটনায় আরো এক ব্যাক্তি মারাত্বক আহত হয়ে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।
উল্লেখ্য,আগামীকাল সোমবার খোরশেদ মিয়ার ছেলে আমিনুল ইসলাম ২০২০ সালের এসএসসি পরিক্ষার্থী তাই ছেলের পরিক্ষার্থীর সিট দেখতেই তিনি স্কুলে যান।
সলিমগঞ্জ পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই শফিকুল ইসলাম রাজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,মরদেহ প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে,ময়নাতদন্তের জন্য আগামীকাল জেলা সদর মর্গে প্রেরণ করা হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।