স্মৃতিতে মানবতার ফেরিওয়ালা ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার তৎকালীন এসপি মিজানুর রহমান

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ : ৭:০৩ পূর্বাহ্ণ ৭৬৮

পুলিশ স্বমন্ধে জনগণের ধারনা পাল্টে দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করে গেছেন তৎকালীন ব্রাহ্মণবাড়ীয়ার এসপি বর্তমান ডিআইজি পুলিশের আইকন মিজান স্যার ।
ছবি টি ৪ বছর আগের, আখাউড়ার থানা ভবন পরিদর্শনের সময় । এত বছর পর মনে হচ্ছে স্যারের শূন্যতা চারিদিকে দৃশ্যমান।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এমন কিছু কর্মকাণ্ড বা দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে গেছেন এই জেলার ইতিহাসে কোন পুলিশ কর্মকর্তা করতে পারেননি। উনার আদর্শিক কর্মকান্ড ই কীর্তিমানের রুপে ব্রাহ্মনবাড়ীয়া বাসির হৃদয়ের মনিকোঠায় অমর থাকবেন ।

কুড়িয়ে পাওয়া অনাথ শিশু হাবিবার পূর্ণবাসন ঝাঁক জমক বিয়ে, উইমেন্স সাপোর্ট সেন্টার, মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান, জেলা শহরের টাউন খাল ক্লিনিং, প্রাকৃতিক দুর্যোগে উত্তর বঙ্গে ট্রাকে ট্রাকে ত্রান সামগ্রী প্রেরণ, যানবাহনে প্রতিবন্ধীদের রিজার্ভ আসন নিশ্চিত করণ, সহজে জন দোড়গোড়ায় পুলিশ সেবা পৌঁছে দিতে জেলা পুলিশের বিশেষ সফটওয়্যার উদ্ভোধন , পুলিশের প্রবাসী কল্যাণ ডেস্কসহ এরকম বিভিন্ন জনসেবা মুলক নীতি মালা প্রনয়ন করেছেন যা পরবর্তীতে পুলিশের ভাবমূর্তি অনেক উজ্জ্বল হয়েছিল। উনার আগে পরে অনেক কর্মকর্তা এসেছেন উনার আদর্শের তুলনা উনি নিজেই। তখন জাতীয় গনমাধ্যমে স্যারের কর্মকান্ড অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হিসেবে ব্যাপকভাবে প্রচারিত হয়েছে।সারা দেশেই সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে। সুশীল সমাজ মিজান স্যার কে তখন ডাকতে শুরু করেন “মানবতার ফেরিওয়ালা” হিসেবে।

পুলিশ সহ বিভিন্ন সেক্টরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নিজেদের আড়ালে রাখতেই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন,কারণ তারা মনে করেন পাবলিক তাকে কাছে পেলে ই বিভিন্ন আকুল আবদার চেয়ে বসবে এই সুবিধা ঐ সুবিধা চাইবে। কিন্তু আমি লক্ষ করে দেখেছি তিনি চেয়েছিলেন এধরনের খোলস থেকে বেরিয়ে সবার তরে নিজেকে উজাড় করতে। তবে তিনি সেটা পেরেছিলেন।সব সময় উনার মাথায় আইডিয়া কাজ করতো কিভাবে জরাজীর্ণতার মধ্যে ও পরিবর্তন আনা যায়। আজ বেশ কয়েক বছর পরেও একজন মিজানুর রহমান এর অভাব ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী মর্মে মর্মে অনুভব করে। কালের পরিক্রমায় হয়তো মিজানুর রহমান হারিয়ে যাবে কিন্তু এক মিজানুর রহমানের কীর্তি কখনো ম্লান হবে না।

আমার ১০ বছর সাংবাদিকতায় লাইফে শুনিনি বা কোনদিন দেখিনি পুলিশ কর্মকর্তা কে দল মত নির্বিশেষে সমগ্র জেলার মানুষ এক কাতারে এসে সম্মানিত করতে। বার বার কেন যে মনে হতে থাকে এমন চৌকস পুলিশ কর্মকর্তা গর্বের ব্রাহ্মণবাড়ীয়ায় বার বার প্রয়োজন। এক মিজানুর রহমান এর আদর্শ যদি হয় বাংলাদেশের সব পূলিশের আদর্শ তাহলে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী হবে দক্ষিণ এশিয়ার আইকন।

 

লেখক: সাংবাদিক আশরাফুল মামুন

jisanmamun86@gmail.com

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।