বিজয়নগরে ফসলী জমির র্উবর মাটি যাচ্ছে ইট-ভাটায়

৮ মার্চ, ২০২০ : ৭:০৩ অপরাহ্ণ ৫৮৪
ফাইল ছবি।

মাইনুদ্দিন চিশতী: ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলায় ফসলী জমি উজার করে ইটের ভাটায় ইট নির্মাণ করা হচ্ছে। উপজেলার চর ইসলামপুর ইউনিয়নের নাজিরাবাড়ি গ্রামে অবস্থিত বনফুল ব্রিক ফিল্ডের স্বত্বাধিকারী মো. সাচ্চু মিয়া তার ব্রিক ফিল্ড নির্মাণের জন্য তার নিজস্ব ফসলী জমি থেকে ভেকু দিয়ে মাটি কেটে তার ব্রিক ফিল্ডে নিয়ে ইট নির্মাণ করছেন। ফলে তার জমির পাশাপাশি অন্যান্য জমির ফসল উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বনফুলের স্বত্বাধিকারী মো. সাচ্চু মিয়া প্রভাবশালী হওয়ায় পরিবেশ অধিদপ্তর বা ভূমি অধিদপ্তরের কোন ছাড়পত্র ছাড়াই মাটি কেটে ফসলী জমি উজাড় করছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বনফুল ব্রিক ফিল্ডের স্বত্বাধিকারী মো. সাচ্চু মিয়া বলেন, আশেপাশে সকল জমি আমার, এখানে অন্যের কোন জমি নেই। তাই পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের কোন প্রয়োজন মনে করিনা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ভূমির মালিক বলেন, সাচ্চু মিয়া অনেক টাকা পয়সার মালিক। তার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে পারে না। সে তার ক্ষমতা ও টাকার জোরে গত ৪/৫ বছর ধরে জমি থেকে মাটি কেটে ইট ভাটায় নিয়ে ইট নির্মাণ করছেন। আমাদের ফসলে সেচের পানি দিতে পারি না। ফলে আমাদের ধানের অনেক ক্ষতি হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব মেহের নিগারকে বিষয়টি অবগত করা হলে তিনি বিষয়টি জানেন না জানা গেছে। তিনি পরক্ষণেই উপজেলা ভূমি কর্মকর্তা মাহবুব রহমানকে তার সঙ্গীয় দল নিয়ে বিষয়টি দেখার জন্য আদেশ করেন। ভূমি কর্মকর্তা নিশ্চিত করেন বনফুল ব্রিক ফিল্ডের ৬টি ট্রাক্টর ও ভেকুর চাবি জব্দ করে চান্দুরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শামিউল হক চৌধুরীর (শামিম চৌধুরী) নিকট জিম্মা করেন এবং বনফুল ব্রিক ফিল্ডের স্বত্বাধিকারী মো. সাচ্চু মিয়াকে পনেরো হাজার টাকা জরিমানা করেন।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।