নবীনগরে ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

৩ এপ্রিল, ২০২০ : ১২:০৬ অপরাহ্ণ ১১৪৫

আসাদুজ্জামান আসাদ: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান ডাকসুর জিএস গোলাম রাব্বানি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নে করোনায় রোজগারহীন বিপদে পড়া দিনমজুর মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরন করেছেন।

গত ০২ এপ্রিল বৃহঃস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে গোলাম রাব্বানী নিজেই বীরগাঁও ইউনিয়নে বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন এবং সারাদিন গরীব অসহায় প্রায় শতাধিক পরিবারের মানুষের সাথে করোনা সচেতনতা নিয়ে কথা বলেছেন এবং তাদের হাতে তুলে দিয়েছেন নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী। এসময় গোলাম রাব্বানীর সাথে বীরগাঁও ইউপি চেয়ারম্যান হাজী কবির আহমেদ, সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা এইচ এম আল আমিন, জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক শাহাদাত হোসেন শোভন ও উপস্থিত ছিল।

এই ব্যপারে গোলাম রাব্বানি তেপান্তর কে জানান,এইচ এম আল-আমিন ভাই ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ শোভন আমার খুব কাছের বড় ও ছোট ভাই। করোনা সম্পর্কে মানুষকে সচেতন করতে তাদের আহবানেই এখানে আসা।তিনি আরো বলেন, আমাদের সবাইকে তার নিজ নিজ জায়গা থেকে সহযোগীতার হাত বাড়াতে হবে এবং সরকারের নির্দেশনা মেনে চলতে হবে। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে মানুষকে নিজের ঘরে অবস্থান করতে হবে না হলে আমাদের আরো কঠিন পরিস্থির সম্মুখিত হতে হবে।এইচ এম আল আমিন তেপান্তর কে বলেন,গোলাম রাব্বানী করোনায় বন্ধি গ্রামের দিনমজুর ও অসহায় মানুষের কষ্ট দেখে তাদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণের ইচ্ছা পোষণ করে।তখন আমার বড় ভাই ইউপি চেয়ারম্যান হাজী কবির আহমেদ এর সযোগীতায়, প্রায় শতাধিক পরিবারের সন্ধান পায়। তাদের প্রত্যেকটি পরিবারকে ৫ কেজি চাল, এক কেজি ডাল, এক কেজি তেল, দুই কেজি আলু, একটি সাবান ও মাস্ক দেয়া হয়।শাহাদাত হোসেন শোভন তেপান্তর কে বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশ লকডাউন অবস্থায় সবচাইতে বেশী অসুবিধায় আছে বাংলাদেশের দৈনিক রোজগারের ভিত্তিতে খেটে খাওয়া মানুষগুলো । তাদের সহযোগিতায় এগিয়ে আসা ঢাকসুর জিএস ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রিয় রাব্বানী ভাইকে জানায় অন্তরীক ধন্যবাদ। আমাদের সবাইকেই যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে আসা উচিত।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।