দুস্থদের ত্রান না দিয়ে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ আখাউড়া প্রশাসনের বিরুদ্ধে

৪ এপ্রিল, ২০২০ : ৭:৩৪ অপরাহ্ণ ৫৭০

আশরাফুল মামুন:অসহায় দুস্থদের মাঝে সরকারি ত্রাণ বিতরণ না করে পুলিশ দিয়ে তাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়া উপজেলা প্রশাসনের বিরুদ্ধে।
আজ শনিবার সকালে উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে এই ঘটনা ঘটে। তবে প্রশাসন কর্তৃক বলা হয়েছে ত্রাণ বিতরণের জন্য একটি তালিকা করা হয়েছে যাদের তালিকায় নাম নেই তাদেরকে পরবর্তীতে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।
জানা গেছে , সারা দেশে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারি নিষেধাজ্ঞার কারণে অসহায় গরীব মানুষদের মাঝে সরকারি ত্রান সহযোগিতার জন্যে পৌরসভার ৭ ও ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের তালিকা করেন আউড়া উপজেলা প্রশাসন। আর এই ত্রান বিতরণের সময় জেলা প্রশাসক উপস্থিত ছিলেন। আজ সকালে এই ত্রান কিছু দুস্থদের মাঝে বিতরণ করে অপেক্ষারত বাকি গরিবদের জানিয়ে দেয়া হয় আজকে আর ত্রাণ দেওয়া হবে না। এ ঘোষণার পর উপস্থিত দুস্থদের মাঝে ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। তখন সহকারী কমিশনার ভূমি মোহাম্মদ নাজমুল হাসানের নেতৃত্বে পুলিশ দিয়ে তাদেরকে তাড়িয়ে দিয়ে গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এসময় ত্রান নিতে আসা এক জন বয়স্কা অসহায় নারী কাঁদতে কাঁদতে বললেন , বাবা আমি ভিক্ষা করে খাই আমার কেউ নাই আমি খুবই কষ্টে আছি দয়া করে আমাকে কিছু সহযোগিতা করুন।
এসময় মো: শাহিন মিয়া ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমি নাম ঠিকানা সবকিছু এন্ট্রি করার পরও আমাকে কোন ত্রাণ দেয়নি,এসময় তিনি আরো বলেন, আমি সকাল সাড়ে দশটায় এসেছি আমার স্ত্রী সন্তান প্রসব করেছে আমি খুব কষ্টে আছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আখাউড়া সহকারী কমিশনার (ভুমি) নাজমুল হাসান বলেন, ত্রাণ বিতরণের জন্য প্রশাসন আমাকে যে তালিকা দিয়েছে সেই তালিকা ভিত্তিতে ত্রাণ বিতরণ করেছি যারা পায়নি তাদেরকে আগামীকাল যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে, তারা শুনতে না চাইলে তাদেরকে অনুরোধ করে বাহির করে দেয়া হয়েছে।

আখাউড়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, দেখুন আমরা প্রথমে প্রাথমিকভাবে ২০০ জন অসহায় গরিবের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে, যারা বাকি ছিল তাদের নাম ঠিকানা ফোন নম্বর নেওয়া হয়েছে পরবর্তীতে তাদের ডেকে ত্রাণ বিতরণ করা হবে, তাদের না বুঝিয়ে পুলিশ দিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া হল কেন এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা প্রথমে তাদের বুঝিয়েছি পড়ে না যেতে চাইলে তাদের অনুরোধ করে বলা হয়েছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।