ভৈরব থানার এস আই করোনায় আক্রান্ত,৬৯ জন কোয়ারেন্টাইনে

১২ এপ্রিল, ২০২০ : ৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ ৬৪০

আসাদুজ্জামান আসাদঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পার্শ্ববর্তী উপজেলার ভৈরব থানার এক উপপরিদর্শক (এসআই) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রেক্ষিতে দুই পরিদর্শকসহ তার ৬৪ সহকর্মী ও ৫ জন চিকিৎসকসহ ৬৯ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

জেলা পুলিশ লাইন থেকে ভৈরব থানায় নতুন করে যোগদান করেছেন ৩৫ পুলিশ সদস্য। এদের মধ্যে ৪ জন কর্মকর্তা (উপ-পরিদর্শক) এবং ৩১জন কনস্টেবল।

ভৈরব উপজেলাকে আশপাশের অন্যান্য জেলা-উপজেলা থেকে করা হয়েছে লকডাউন (বন্ধ)। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

১০ই এপ্রিল গণবিজ্ঞপ্তিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি লুবনা ফারজানা ১৫ জন পুলিশ সদস্যকে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর সিদ্ধান্ত জানালেও, পরে রাত ১০টার দিকে পুলিশ সুপারের নির্দেশে ভৈরব থানার সকল পুলিশ সদস্যকে (৬৪ জন) কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেন।

৬৪ পুলিশ সদস্যের মাঝে দুই পরিদর্শকসহ (ওসি) ৩১ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে (নিজ নিজ বাসায়) আর ৩৩ জনকে স্থানীয় শহীদ আইভি রহমান পৌর স্টেডিয়ামে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়।

করোনার উপসর্গের কারণে ভৈরব থানার ওই পুলিশ (উপ-পরিদর্শক) সদস্যের নমুনা এর আগে আইইডিসিআরে পাঠালে শুক্রবার দুপুরে আসা রিপোর্টে তার করোনা শনাক্ত হয়। বিকেলে তাকে ঢাকার কুর্মিটোলা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়।

এদিকে করোনা আক্রান্ত ওই পুলিশ সদস্যের সংস্পর্শে আসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও আবাসিক মেডিকেল অফিসারসহ অপর ৪ চিকিৎসককেও প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে বলে জানান উপজেলা করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. বুলবুল আহমেদ।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।