আখাউড়ায় শিলা বৃষ্টিতে শত শত হেক্টর ফসল নষ্ট ,কান্না থামছে না কৃষকের

১২ এপ্রিল, ২০২০ : ৫:৪৭ অপরাহ্ণ ৮১২

আশরাফুল মামুন: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় স্বরণকালের ভয়াবহ ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে কৃষকের শত শত হেক্টর জমির পাকা ধান সহ বিভিন্ন ধরনের ফসল পুরোপুরি ভাবে বিনষ্ট হয়ে গেছে। গতকাল রাত ১১ই এপ্রিল রাত পৌনে ৯ টা থেকে শুরু করে সোয়া ৯ টা পর্যন্ত টানা আধা ঘন্টায় কৃষকদের নি:স্ব করে দিয়েছে এই সর্বনাশা শিলা বৃষ্টি। বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন দেবগ্ৰাম, নয়াদিল ,দরুইন এলাকার বিলে। শিলা বৃষ্টির তান্ডব এমন ভাবে হয়েছে দেখলে এমন মনে হয় কেউ যেন ধানের শীষ থেকে ধানগুলো কে যেন একটা একটা করে তুলে নিয়েছে ! ধানের গাছটিতে কোন ধান আর অবশিষ্ট নেই।

আজ সকালে ফসলী জমির আইলে গিয়ে কৃষকেরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। বুক চাপড়ে চাপরে বিলাপ করতে থাকেন। এদিকে করোনা ভাইরাস আতঙ্কে যখন গৃহবন্দী সবাই এই কঠিন সময়ে মাঠে ফসল নষ্ট হওয়ায় কৃষকেরা বাকি দিনগুলো তে কি খাবেন কিভাবে সংসার চালাবেন এই কথা চিন্তা করে অনেকেই মূর্ছা যাচ্ছেন আবার কেউ কেউ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। এমতাবস্থায় কৃষকদের সরকারি সাহায্য ছাড়া তারা না খেয়ে মরার উপক্রম হয়েছে।
ঐ এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের এর মধ্যে রয়েছে, মনির হোসেন,খোকন মিয়া, হোসেন মিয়া, কাদের মোল্লা, সিদ্দিক মিয়া, শেখ বাছির , সুলতান মিয়া ,আক্কাস মিয়া, সেন্টু মিয়া, জালাল মিয়া, মুতি মিয়া,আবু কালাম, শুক্কু মিয়া, খোকা মিয়া, ইসমাইল মিয়া সহ শত শত কৃষক।

প্রত্যেক কৃষক জানায় এবছরে ভালো ফলনের আশা করেছিলাম কিন্তু গতরাতে যেভাবে ভারী বর্ষণ ও শিলা বৃষ্টি হয়েছে তাতে আমাদের সবার জমির ধান ঝড়ে মাটিতে পড়ে নষ্ট হয়ে গেছে, এতে করে আমাদের প্রচুর ক্ষতি হয়েছে। আমরা স্থানীয় কৃষি কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধি সহ মাননীয় আইনমন্ত্রির ও প্রধান মন্ত্রীর দৃষ্টি চেয়েছেন এউপজেলার কৃষকরা।

স্থানীয় ৮নং দেবগ্রাম ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুল মিয়া বলেন, এবছর বাম্পার ফলন হয়েছে ধানের কিন্তু গতরাতের শিলাবৃষ্টিতে উপজেলার সবকটি জমির ধান নষ্ট হয়ে গেছে এতে করে কৃষকরা পড়েছেন হতাশায়, আমি জনপ্রতিনিধি হিসেবে সরকারের সৃদৃষ্টি কামনা করছি আমার কৃষক ভাইদের যেন কিছুটা ক্ষতি পূরণ দেয়া হয়। তাদের কান্না আমি সহ্য করতে পারছিনা আমি ভোর ৬টায় খবর পেয়ে জমিতে আসি আসার পর থেকেই কৃষকদের কান্না থামাতে পারছিনা, আমি তাদের কে যতদূর পারছি শান্তনা দিয়ে থামানোর চেষ্টা করে যাচ্ছি, তাদের কে নিয়ে বিষ খেয়ে মরন ছাড়া কোন উপায় দেখছি না।

এবিষয়ে আখাউড়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শাহানা বেগম বলেন, আখাউড়া উপজেলা এবং পৌর এলাকায় শিলা বৃষ্টিতে কৃষকের কি পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তা মাঠ কর্মীর মাধ্যমে নাম তালিকা করা হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সারা বাংলাদেশে কৃষকদের জন্য ৫ হাজার কোটি টাকা প্রনোদনা ঘোষনা করেছেন। আগামীতে ঐ প্রনোদনার আওতায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের আনার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।