সৌদি প্রবাসী বকুল গাজীর অর্থায়নে পর্যায়ক্রমে বিজয়নগরে ১২০০ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরণ

২২ এপ্রিল, ২০২০ : ৬:১৮ অপরাহ্ণ ৭৩৫

আসাদুজ্জামান আসাদঃ বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের সৌদি প্রবাসী বকুল গাজীর অর্থায়নে পাহাড়পুর ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন গ্রামের ১২০০ পরিবারের মাঝে পর্যাক্রমে প্রায় ১২লক্ষ টাকার ত্রান বিতরণ করা হয়েছে। তার ই ধারাবাহিকতায় আজ ২২ এপ্রিল (বুধবার) পাহাড়পুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে ৬০০পরিবারের মাঝে খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী বিতরন করা হয়।

AL MADINA IT ad

এ ব্যপারে বকুল গাজী তেপান্তর কে জানান,আমি সৌদি আরবের একটি অনলাইন প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করি।এখানে আমার গ্রাম বিজয়নগরের অনেক মানুষ কাজ করে। করোনার প্রভাবে সৌদি আরবে সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকালেও আমাদের হোম ডেলিভারি সিষ্টেম চালু রয়েছে তাই আমার প্রতিষ্ঠান আর্থিক ভাবে অনেক লাভবান হচ্ছে। তাই দেশে আমার গ্রামের মানুষের পাশে থাকার সামান্য প্রচেষ্টা। আমাদের গ্রামের কৃতি সন্তান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব হোসাইন ই প্রথমে উদ্যোগ নিয়ে আমাকে উৎসাহিত করে।পরে আমার দুই ভাই, মাহবুব ও স্বপন এর সহযোগিতায় আমি আমার গ্রামের প্রায় ৯০০ পরিবারের মাঝে ত্রান বিতরণ করেছি।তাছাড়াও অন্যান্য এলাকার প্রায় ৩০০ পরিবারকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছি।এখন অব্দি সব মিলিয়ে প্রায় ১২ লক্ষ টাকার মত খরচ করেছি করোনাপীড়িত আমার গ্রামের অসহায় মানুষ গুলার জন্য।ইনশাআল্লাহ করোনা যতদিন সহনীয় পর্যায়ে না আসবে ততদিন আমার এই কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টা থাকবে।

এই ব্যপারে বিজয়নগর উপজেলার মাহবুব হোসাইন তেপান্তরকে বলেন, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব রোধে সরকারি নির্দেশে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা হতদরিদ্র মুসলিম ও হিন্দুদের খোঁজ নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি আমার সেচ্ছাসেবী কর্মীদের সাথে নিয়ে আমি নিজেই। বকুল গাজী আমাদের এলাকার কৃতি সন্তান।ওনার অর্থায়নে ওনার আপন ২ বড় ভাই মোতালিব গাজী ও সালাম গাজী কে সাথে নিয়ে এই আয়োজন করা হয়েছে।এই বিপদের সময়ে ঘরে অবস্থান করে খাবার পেয়ে হতদরিদ্ররা সন্তোষ প্রকাশ করেছ। আমি সমাজের বিত্তশালীদের অনুরোধ জানাব সবাই যেন অন্তত নিজের এলাকার গরীব মানুষ গুলার পাশে দাঁড়ায়।বিত্তবান সবাই যদি অন্তত তাদের প্রতিবেশী গরীব মানুষ গুলার পাশে দাঁড়ায় তবে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় কেউ কোন দিন না খেয়ে অভুক্ত থাকবে না।

তিনি আরো বলেন, করোনায় আমাদের জন সচেতনতা আরো বাড়াতে হবে।করোনা থেকে বাঁচতে ব্যাক্তি সচেতনতা ছাড়া কোন উপায় নেই।তাই সবার প্রতি আহবান থাকবে সরকারী নির্দেশনা মেনে চলুন,ঘরে থাকুন,সুস্থ  থাকুন।

  • 1K
    Shares
ZamZam Graphics