ত্রানের প্যাকেটে খাদ্য-সামগ্রী নয় গরীবের সাথে করা প্রহসন থাকে

২৬ এপ্রিল, ২০২০ : ১২:১৯ অপরাহ্ণ ৭৭৪

আসাদুজ্জামান আসাদঃ শুরু হয়েছে সংযমের মাস রমজান। সিয়াম সাধনায় নিয়োজিত হয়ে সারাবেলা খাদ্য গ্রহণ থেকে বিরত থাকার সময়। কিন্তু এ বছর সুফিয়া বেগমের বাসায় রমজান এসেছে বেশ আগেই। করোনাভাইরাসের প্রকোপে আর ১০টি নিম্নবিত্ত পরিবারের মতোই তার পরিবারেরও জুটছে না দুমুঠো খাবার।  সুফিয়া শুনেছিলেন শনিবার ত্রাণ মিলবে। সে আশায় বুক বেঁধে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ছুটেছিলেন । চড়া রোদ্দুরের মধ্যে এক যায়গায় পৌঁছানোর পর মেলে মাত্র এক কেজি চাল।  পরিবারের মুখে একমুঠো ভাত তুলে দিতে সেই চাল নিয়েই আবার ছুটবেন বাসার দিকে। কিন্তু বেঁচে থাকার অদম্য মনোবলের সঙ্গে যেন তাল মিলিয়ে উঠতে পারছে না তার শরীর। এই চাল দিয়ে আজ অন্তত ভাত খাওয়া যাবে, এখন ভাত কি দিয়ে খাবে তার জন্যই চিন্তিত মনে বসে রইলেন রাস্তায়।

আমাদের সমাজের কিছু মানুষ ত্রান দেয়ার নামে ব্যক্তি প্রচারণায় ব্যস্ত।১কেজি চাল আর আধা কেজি আটা বিতরণ করা হয় ১হাজার পরিবারের মাঝে। নিউজের হেড লাইন হয় অমুক ভাই আজ ১হাজার পরিবারের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেছেন। টিভি চ্যানেলেও সেই ভাই দেন অফুরন্ত বক্তব্য। কিন্তু লোক দেখানো এইসব ত্রান যারা পাচ্ছে তাদের মনে আক্ষেপ থেকেই যাচ্ছে। কান্দিপাড়ার ত্রান পাওয়া শাহেনা বেগম জানান,আমাদের এলাকার এক নেতা ত্রান দিবে শুনে অনিচ্ছায়ও বাধ্য হয়ে লাইন এ দাঁড়ায় অভুক্ত সন্তানদের কথা ভেবে,সকালে থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে দুপুরে পর এক্টা প্যাকেট পাই।সেই প্যাকেট নিয়ে বাসায় এসে দেখি এক কেজি চাল আর আধা কেজি আটা। তিনি আরো বলেন,অভিযোগ নেই তবে এই খাবার গুলা রান্না করে খাওয়ার জন্য আরো যেই সামগ্রি প্রয়োজন সেই গুলা এখন পাব কোথায়? ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিভিন্ন এলাকায় এমন চিত্র এখন প্রতিদিনকার,বিভিন্ন দলের মানুষ বড় বড় ব্যানার লাগিয়ে, প্রধানমন্ত্রী,স্থানীয় এম পি সহ কেন্দ্রীয় কমিটির নাম লিখে ১০০-২০০ প্যাকেট ত্রান দিচ্ছেন কিন্তু ত্রানের নামে প্রচারণাই তাদের মূল উদ্দেশ্য। ত্রানের প্যাকেট গুলাতে খাদ্য-সামগ্রী নয় গরীবের সাথে করা প্রহসন থাকে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  • 477
    Shares