রোজাদার ব্যক্তিরা রাইয়্যান নামক দরজা দিয়ে জান্নাতে প্রবেশ করিবে

৩ মে, ২০২০ : ২:২৮ অপরাহ্ণ ৭২১

মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান: যে ব্যক্তি রমজান মাসে আল্লাহর নৈকট্য লাভের আশায় একটি নফল আদায় করল সে যেন অন্য মাসের একটি ফরজ আদায় করল, যে ব্যক্তি এ মাসে একটি ফরজ আদায় করল সে যেন অন্য মাসের সত্তরটি ফরজ আদায় করল। 

রমজান মাস সবরের মাস, আর সবরের বিনিময় হলো জান্নাত। রমজান মাসে মুমিনের রিযিক বৃদ্ধি করা হয়।

হজরত সাহল ইবনে সা’দ (রা:)হতে বর্ণীত, রাসুল(সা:)বলেন, জান্নাতের একটি দরজা আছে। তাকে রাইয়ান বলা হয়।কিয়ামতের দিন এ দরজা দিয়ে কেবলমাত্র রোজাদারগণ প্রবেশ করবেন। রোজাদার ছাড়া এ দরজা দিয়ে অন্য কেহ প্রবেশ করতে পারবে না। বলা হবে রোজাদারগণ কোথায়? তখন রোজাদারগণ দাঁড়িয়ে যাবে। তখন তারা সবাই ভেতরে প্রবেশ করার পর রাইয়ান নামক জান্নাতের দরজা বন্ধ করে দেওয়া হবে।এরপর এ দরজা দিয়ে আর কেউ প্রবেশ করবেনা, ( বুখারি ও মুসলিম)।

রহমতের দশক  প্রায় শেষের দিকে।  রহমতের যে কয়েকটি দিন  আমাদের মাঝে আছে তার যথাযথ মূল্যায়ন করা উচিৎ। সে মূল্যায়নটি হতে হবে এবাদত বন্দেগীর মাধ্যমে। আমাদের সকলকে এবাদতের মাত্রা বৃদ্ধি করতে হবে। নিজেদের গুনাহখাতা মাফ করানোর জন্য অধিকমাত্রায় তাওবা ইস্তেগফার করার পাশাপাশি আল্লাহর দরবারে কান্নাকাটি করতে হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।