ঘুড়ির সুতায় আবারো গলা কেটে আহত যুবক;মৃত্যুফাদঁ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ওভারব্রিজ

১৬ মে, ২০২০ : ১২:৫৭ অপরাহ্ণ ১১৬৫

আসাদুজ্জামান আসাদঃ মৃত্যু ফাদেঁ পরিণত হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলগেইট ওভারব্রিজ। প্রতিনিয়ত ঘুড়ির সুতায় ঘটছে একের পর এক দুর্ঘটনা।
গতকাল ১৫ই মে (শুক্রবার) সন্ধ্যায় আবারও দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন পাইকপাড়ায় বসবাসকারী মোঃসুলাইমান হোসাইন।

সোলাইমান হোসাইম তেপান্তর কে জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ডিসি অফিসে জরুরি কাজ সেরে বাইকে বাসায় ফেরার পথে ঘটে এই ঘটনা। ফ্লাইওভারের ওপরে থাকা ঘুড়ির সুতো গলায় প্যাঁচিয়ে যায়।আমার বাইকের গতি কম থাকার প্রানে বেঁচে গেলাম।তবু গলা অনেকখানি কেটে গেছে।
আমি সচেতনভাবে এটাকে দূর্ঘটনা বলছি না। এটা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অবশ্যই। কারন ওই সময় আশেপাশে কিংবা আকাশে কোন ঘুড়ি উড়তে দেখিনি। গত কয়েকদিনে অন্তত ৮/১০টি একইরকম ঘটনার পোস্ট এবং নিউজ দেখিছি ফেইসবুকে। এটা অ্যালার্মিং! হয় অসেচতনভাবে আমরা এটা করছি যার দরুন একটি মানুষ মারা যেতে পারে নয়ত ইচ্ছাকৃত ফেলে রাখছি যেন মানুষটা মারা যায়। আমার কাছে ব্যাপারটা পরিকল্পিত বলে মনে হচ্ছে।

ছবি -আহত মোরসালিন

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

দুর্ঘটনার শিকার মোঃ আরমান ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা পুলিশের পেইজে লিখেন, ফ্লাইওভারে প্রতিদিনই ঘুড়ির সূতা নামক মৃত্যুফাদঁ পেতে ছিনতাইয়ের গঠনা ঘটছে, কিছুদিন আগে একজনের ২১৩ টি সেলাই লেগেছে,আরেকজনের গলা কেটে গিয়েছিল, আজও একজনের গলায় সূতা আটকে কেটে গেছে, গত ২ দিন পূর্বে আমি বেচে যাই সামনে মাইক্রোবাস ছিল বলে, তাই আপনাদের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এই মৃত্যুফাদঁ থেকে রক্ষা করার জন্য।

তেপান্তর এর সম্পাদক সীমান্ত খোকন বলেন,এই বিষয় নিয়ে আমাদের নিউজ পোর্টালে এর আগে ২বার নিউজ হয়েছে।যা পড়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় ও নিউজ হয়।এর আগেও ওভারব্রীজে দুইজন আহত হয় তার মাঝে একজনের ২১৩ টি সেলাই লাগে,রিস্কা সহ উল্টে ঠোঁট কেটে যায় রিস্কা চালকের,আরেক বাইক চালকের গলা কেটে যা গত সাপ্তাহে। এই ব্যাপারে আমাদের পক্ষ থেকে পুলিশ প্রশাসনকে অবগত করা হলেও তাদের তেমন কোন পদক্ষেপ নজরে আসেনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি সেলিম উদ্দিন তেপান্তর কে বলেন,আমরা অবগত হওয়ার পর ওইখানের ব্যপারে অনুসন্ধান চালিয়ে জানতে পেরেছি, এই গুলা ছোট ছোট ছেলেরা ঘুড়ি উড়তে গিয়ে অসচেতন ভাবে এই ঘটনা ঘটাচ্ছে।তাদের অভিভাবকে এই ব্যপারে অবগত করা হয়েছে।
তবে কেউ এখন অব্দি এই ব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি।আহত ব্যাক্তিদের থেকে লিখিত অভিযোগ না পেলে আমরা অন্যকোন ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারছি না।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।