বিজয়নগরে নারী অপহরণের অভিযোগ

২২ অক্টোবর, ২০১৯ : ৩:৫৩ অপরাহ্ণ ৩১৫

তেপান্তর রিপোর্ট: জেলার বিজয়নগরে এক নারীকে অপহরণের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় অপহৃত নারীর মেয়ে মুন্নি থানায় মামলা করতে গেলে মামলা নেওয়া হয়নি বলেও অভিযোগ আছে। পরে ২১ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন মুন্নি। মামলা নং পি ৩২৬/১৯। মুন্নি বিজয়নগর উপজেলার কেশবপুর গ্রামের শাহজাহান মিয়ার কন্যা।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মুন্নির মা আয়েশা বেগমের (৩৭) কাছ থেকে ১ লক্ষ টাকা ধার নিয়েছিল একই গ্রামের আব্দুল রউফ মিয়ার পুত্র বাসির মিয়া। সেই টাকা চাওয়ার জন্য মুন্নি বাসির মিয়ার বাড়িতে যাওয়া আসা করত। এর মধ্যেই গত ২ অক্টোবর বাসির মুন্নিদের বাড়িতে যায়। কথা আছে বলে বাসির মিয়া মুন্নির মা আয়েশাকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যায়। তখন কিছু দুরে গিয়ে বাসির মিয়া ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা মিলে মুন্নির মা আয়েশাকে হাত-মুখ বেঁধে সিএনজি-অটোরিকশায় উঠিয়ে নিয়ে যায়। তারপর থেকে আয়েশা নিখোঁজ। ঘটনার পরের দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করে আয়েশা ফিরে না আসায় থানায় মামলা করতে যান মুন্নি। তখন মামলা না নিয়ে বিজয়নগর থানার ওসি তালবাহানা শুরু করেন বলেও অভিযোগ করেন মুন্নি।
ঘটনার পর থেকে মুন্নির মা আয়েশা এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছেন। এঘটনায় বাসির মিয়াকে প্রধান আসামি করে আরো ৩-৪ জনকে অজ্ঞাতনামা হিসেবে আসামি করা হয়।
মুন্নি ধারণা করছেন, আসামি ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা তার মাকে কোথাও আটকে রেখে পালাক্রমে গণধর্ষণ করছে অথবা ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে।
এক ঘটনায় আদালত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে সাত দিনের মধ্যে তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদান করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।