নবীনগরে ড্রেজারে মাটি ভরাটের ফলে জলাবদ্ধতায় ফসলী জমি

২১ জুন, ২০২০ : ৪:১৩ অপরাহ্ণ ৫৭২

মোঃ সফর মিয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার ইব্রাহিমপুর ইউনিয়নের ইব্রাহিমপুর পাল পাড়া এলাকার দক্ষিন-পশ্চিমের দুবচকের একটি প্রাচীন খালের পাশে থাকা বেশ কিছু কৃষি জমি মাটি দিয়ে ভরাটের ফলে প্রাচীন ওই খালটি সরু হয়ে যায়। যার ফলে সামান্য বৃষ্টি হলেই ওই চকের কয়েক একর ফসলী জমি পানিতে তলিয়ে গিয়ে এলাকার শত শত কৃষকের ফসল বিনষ্ট হচ্ছে। বিষয়টির প্রতিকার চেয়ে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) এর বরাবরে অভিযোগ জানিয়েছেন এলাকাবাসী। গতকাল রবিবার(২১.০৬.) সরেজমিন গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।

অভিযোগ সূত্রে ও সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, ইব্রাহিমপুর পাল পাড়ার দক্ষিন-পশ্চিম দুবচকের পানি নিস্কাশনের জন্য প্রাচীন একটি খাল রয়েছে। ওই খালের পাশে স্থানীয় সৌদী প্রবাসী শেখ সাদী’র বেশ কিছু কৃষি জমি ড্রেজার দিয়ে মাটি ভরাটের সময় প্রাচীন ওই খালটির কিছু অংশ ভরাট হয়ে যায়। যার ফলে সামান্য বৃষ্টিতে জমে থাকা পানি দ্রুত নিস্কাশন না হওয়ায় দুবচকের কয়েক একর কৃষি জমি পানিতে তলিয়ে গিয়ে ফসল বিনষ্ট হচ্ছে।

এ বিষয়ে ফসল বিনষ্ট হওয়া কৃষক দুলাল মিয়া, মিজান মিয়া, তাজুল ইসলাম, জীবন মিয়া, মহসিন মিয়া, মসকুত আলী, বাছির মেম্বার(সাবেক), সামসু মেম্বার (সাবেক),আলাল মিয়া, অভিযোগকারী জয়নাল বেপারীসহ একাধিক কৃষক বলেন, শেখ সাদী সাব ড্রেজার দিয়ে নিজের জমি ভরাট করার সময় একশ বছরের পুরাতন ওই খালটিও মাটিতে ভরাট হয়ে যায়। যার কারণে আমাদের অনেক ফসলি জমি নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আমরা এর সুষ্ঠু সমাধানের জন্য এসিল্যান্ড সাহেবের নিকট অভিযোগ দিয়েছি।

এ বিষয়ে ভরাটকৃত জমির মালিক সৌদী প্রবাসী শেখ সাদী মুঠোফোনে জানান, ওই খালের পাশে শুধু আমার জমিই না, আরো অনেকের জমিও আছে। আমি সবাইকে সাথে নিয়ে সকলের স্বার্থে ওই খালটি প্রশস্ত করতে যা যা করা দরকার তা করতে প্রস্তুত।

এ বিষয়ে নবীনগর উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইকবাল হাসান মুঠোফোনে বলেন, ইব্রাহিমপুর ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা বিষয়টি পর্যবেক্ষন করেছেন এবং স্থানীয়দের নিয়ে সামাজিক ভাবে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।