বিজয়নগরে মোবাইল ফোনে স্ত্রীর আপত্তিকর ছবি দেখে প্রবাসীকে হত্যা

২২ জুন, ২০২০ : ৭:৪৭ অপরাহ্ণ ২১৮২

আসাদুজ্জামান আসাদঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় লোকমান নামে এক প্রবাসীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ‘মোবাইল ফোনে স্ত্রীর আপত্তিকর ছবি দেখে’ ওই প্রবাসীকে হত্যার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহত প্রবাসী লোকমান মিয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার শ্রীঘর এলাকার নূরুল ইসলামের ছেলে ও ওমান প্রবাসী। গ্রেফতার খোকন মিয়া (৩৮) উপজেলা সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামের লেবদ আলীর ছেলে।

এ বিষয়ে পুলিশ ও মামলার তদন্ত বিবরনী থেকে জানা যায়, খোকন মিয়ার স্ত্রী সৌদি আরবে থাকেন। সেখানে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় হয় ওমান প্রবাসী লোকমান মিয়ার সঙ্গে। দুজনের মাঝে মোবাইলে যোগাযোগ ছিল।ছবি -আটক খোকন মিয়া

ওমান প্রবাসী লোকমান মিয়া দেশে ফিরেছেন জেনে, খোকনের প্রবাসী স্ত্রী মোবাইলে লোকমান মিয়াকে তার ছোট বোনকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। এ সময় বিজয়নগরে এসে তার সঙ্গে যোগাযোগ করে বোনকে দেখতে বলেন।

ওমান প্রবাসী লোকমান মিয়া খোকন মিয়ার সঙ্গে মোবাইলে যোগাযোগ করে ১০ জুন বিজয়নগর আসেন। খোকন মিয়া স্ত্রীর কথা অনুযায়ী প্রবাসী লোকমান মিয়াকে তার শ্যালিকাকে দেখাতে উপজেলার কালাছড়াতে শ্বশুরবাড়িতে নিয়ে যান।

সেখানে যাওয়ার পর লোকমানের মোবাইলটি দেখতে খোকন হাতে নেয়। মোবাইল হাতে নেয়ার পর খোকন মিয়া তার প্রবাসী স্ত্রীর আপত্তিকর ছবি লোকমান মিয়ার মোবাইলে দেখেন। এই ছবি দেখে খোকন মিয়া তার শ্যালক শুক্কুর আলীকে জানান।

খোকন মিয়া ও তার শ্যালক শুক্কুর আলী লোকমান মিয়াকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। সেই পরিকল্পনা অনুযায়ী ১০ জুন মধ্যরাতে দুজন লোকমান মিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করেন। বিষয়টি খোকন মিয়া তার শ্বশুর আ. কাইয়ুমকে জানান।পরে খোকন মিয়া, তার শ্বশুর কাইয়ুম ও শ্যালক শুক্কুর আলী একটি জমির মাঝে লোকমান মিয়ার মরদেহ পুঁতে ফেলেন।

এ ব্যাপারে বিজয়নগর থানার ওসি মো. আতিকুর রহমান জানান, লোকমান মিয়া নিখোঁজ থাকায় তার বাবা ১৪ জুন নাসিরনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। তদন্তে খোকন মিয়াকে সন্দেহভাজন হওয়ায় আটক করা হয়।পরে তিনি এই হত্যাকাণ্ডের ব্যাপারে সব কিছু পুলিশের কাছে স্বীকার করেন। তার দেয়া তথ্য মতে লাশ উদ্ধার করা হয়।
গতকাল ২১জুন (রবিবার) আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।তার শ্বশুর আ. কাইয়ুম ও শ্যালক শুক্কুর আলীকে আটকের অভিযান চলছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।