নবীনগরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত হানিফ মিয়া হাসপাতালে মারা গেছেন

৩০ জুন, ২০২০ : ৭:০৫ অপরাহ্ণ ১৯৩

মোঃ সফর মিয়া: নবীনগরের শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের সাহেবনগর গ্রামে দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হওয়া হানিফ মিয়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মঙ্গলবার মারা গেছেন। তবে কি কারণে হানিফ মিয়ার মৃত্যু হয়েছে এর সঠিক কারণ ময়নাতদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না বলে জানিয়েছেন নবীনগর সার্কেলের দায়িত্বে থাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মকবুল হোসেন।

জানা যায়, গত ২রা জুন মঙ্গলবার রাতে পুকুরে মাছ ধরার ঘটনাকে কেন্দ্র সাহেবনগর বাজারে হোসেন আলি বাড়ির মোহাম্মদ রাব্বানি মিয়াকে মাইনুদ্দিন বাড়ির আপন মিয়ার ছেলে সুমন মিয়ার লোকজন মারধর করে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ৩রা জুন বুধবার সকালে রিপন মিয়া ও নান্নু মিয়া দলের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-স্বস্ত্র নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। ওই সংঘর্ষে নান্নু মিয়া গ্রæপের লোকের ছোড়া গুলির আঘাতে রিপন মিয়া গ্রæপের হানিফ মিয়া গুরুতর আহত হলে, তাকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে কুমিল্লা এবং পরে ঢাকার সাইনবোর্ড এলাকার প্রো-একটিভ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে মৃত্যুবরণ করেছেন বলে জানিয়েছে হানিফ মিয়ার নিকট আত্মীয় নুরুল হক। দু’পক্ষের রক্তক্ষয়ী ওই সংঘর্ষের ঘটনায় নবীনগর থানা পুলিশ এখন পর্যন্ত ৯ জনকে আটক করেছেন।

এ ব্যাপারে নবীনগর সার্কেলের দায়িত্বে থাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মকবুল হোসেন বলেন, হানিফ মিয়ার মৃত্যুর খবর শুনেছি, লাশের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে নিশ্চিত হওয়া যাবে তিনি কি স্বাভাবিক মৃত্যু বরণ করেছেন নাকি সংঘর্ষে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে মারা গেছেন। এ ঘটনায় অন্যান্য আসামীদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

  • 44
    Shares