ইজিবাইক অটোরিক্সা চালককে হত্যা চেষ্টা, ছিনিয়ে নিয়েছে গাড়ী ও মোবাইল ফোন

৩ জুলাই, ২০২০ : ৪:০৮ অপরাহ্ণ ৬৩৭

তেপান্তর রিপোর্ট: পূর্ব শত্রুতার জেরে ইজিবাইক অটোরিক্সা চালককে হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে। একই সাথে চালককে আহত করে গাড়ি ছিনিয়ে নেয়া হয়েছে। এঘটনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে প্রকাশ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরতলীর শেরপুরে আশুগঞ্জের চারতলা গ্রামের বিল্লাল মিয়া ইজিবাইক চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে। ইজিবাইক অটোরিক্সা চালিয়ে ২ জুলাই বৃহস্পতিবার সকাল অনুমান সাড়ে ১০ টায় তালশহর পশ্চিম ইউনিয়নের পুথাই গ্রামের পুথাই ভাঙ্গা ব্রীজের সামনে পৌছার পর সেখানে অবস্থানরত পুথাই গ্রামের মৃত বরজু মিয়ার ছেলে সামন মিয়া ও জব্বার মিয়ার ছেলে ইসহাক মিয়াসহ ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গতিরোধ করে। সামন মিয়া বিল্লাল মিয়াকে খুন করে লাশ গুম করে ফেলা এবং তার চালিত ইজিবাইক অটোরিক্সা গাড়ীটি ছিনিয়ে নেয়ার জন্য সঙ্গীদের নির্দেশ দেয়। তখন ইসহাক মিয়াসহ অন্যান্যরা লাঠি ও লোহার রড দিয়ে আঘাত করে গাড়ী চালক বিল্লাল মিয়ার সারা শরীরে আঘাত করে মারাত্মক থেতলা ফুলা জখম এবং স্পর্শ কাতর ডান চোখে গ্রিভিয়াস জখম করে। এতে ডান চোখটি চিরতরে নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

আহত বিল্লাল মিয়া বর্তমানে ডান চোখে কিছু দেখতে পারছে না। এ অবস্থার মধ্যেই সামন মিয়া বিল্লাল মিয়ার নিকট থেকে তার ব্যবহৃত স্যামসং জে-৭ প্রাইম মোবাইল ফোন সেট ও ইজিবাইক অটোরিক্সাটি ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।
এই অবস্থায় বাঁচার জন্য গুরুতর আহত বিল্লাল মিয়া চিৎকার শুরু করলে আশেপাশে থাকা জনতা এগিয়ে যেয়ে ঘটনা শুনে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার এবং স্বাস্থ্য কর্মীরা তার চোখের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা না করে ভর্তি না করে প্রেসক্রিপশনে নামে মাত্র কিছু ঔষধ লেখে বাহিরে ভাল চিকিৎসা করার পরামর্শ দিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। এ বিষয়ে গুরুতর আহত বিল্লাল মিয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।