আখাউড়ায় সালিশে সমাধানের পর এক ব্যাক্তিকে কুপিয়ে জখম

১৯ জুলাই, ২০২০ : ১:৫৮ অপরাহ্ণ ১২১৭

মোঃ দ্বীন ইসলাম খাঁন:- আজ রবিবার (১৯জুলাই) ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের তুলাবাড়ি এলাকায় বিচার সালিশের মাধ্যমে সমাধানের পর পূর্ব শত্রুতার জেরে শাহনোয়াজ(৫০) নামে এ ব্যাক্তির উপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে কুপিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ঘটনায় আহত ওই ব্যাক্তি তুলাবাড়ি এলাকার মৃত সাফি মিয়ার পুত্র।

স্থানীয়দের মাধ্যমে জানাযায়, ঘটনাস্থল থেকে আশংকা জনক অবস্থায় শাহনোয়াজ কে প্রথমে আখাউড়া উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত জিকিৎসক তাকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

সরেজমিনে খোজ নিয়ে জানা গেছে, তাদের পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে তাদের দুই পরিবারের মধ্যে ঝগড়াঝাটি চলছিলো পরে বিষয়টি স্থানীয় মাতাব্যর দের চেষ্টা সমাধান করা হলেও আজ সকালে হামলা চালিয়ে শাহনোয়াজকে কুপিয়ে জখম করে একই এলাকার প্রতিবেশী কাহার মিয়ার ছেলে আলমগীর মিয়া, ফিরোজ মিয়ার ছেলে মোঃ শিপন মিয়া , হাসিম মিয়ার ছেলে সোহাগ মিয়া, ফিরোজ মিয়ার ছেলে রকিব মিয়া এবং আলমগীর এর ভাগিনা,সোহাগের ছোট ভাই সহ আরো অনেক।

প্রত্যক্ষদর্শী সূ্ত্রে জানা গেছে, আজ রোববার সকালে আখাউড়া থেকে সাতপাড়া এলাকা হয়ে বাড়ি ফেরার পথে সাতপাড়া নামক স্থানে শাহনোয়াজের উপর অতর্কিত হামলা চালায় প্রতিপক্ষের লোকজন। এসময় হামলা চালিয়ে কুপিয়ে তাকে গুরুতর ভাবে আহত করলে তার স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। এর আগে শাহনোয়াজের উপর হামলা হতে পারে সন্দেহে আখাউড়া থানায় একটি জিডি এন্ট্রি করেন তিনি।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে পারিবারিক বিরোধের সুত্র ধরে শাহনোয়াজ ও তার প্রতিপক্ষের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে ঝামেলা চলছিল। কিছু দিন আগে এ বিষয়ে থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা ও হয়েছিল পরে সামাজিক ভাবে বিষয়টি সমাধান হয়ে যায়। কিন্তু সমাধানের পরেও এ ঘটনা ঘটলো।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে আখাউড়া থানার এএসআই মোঃ আলমগীর হোসেন জানান, তারা উভয় পক্ষই থানায় পাল্টাপাল্টি মামলা নিয়ে এসেছিল পরে স্থানীয় গনমান্যদের পরামর্শে উভয় পক্ষকে মিলিয়ে দেওয়া হয়েছে । তিনি আরো বলেন, এর পর আজ সকালে শুনেছি শাহনোয়াজ মিয়ার উপর হামলা করে তাকে জখম করেছে আমি তাদের বলে দিয়েছি আগের জিডি এন্ট্রির কপি নিয়ে থানায় ওসি স্যারের সাথে দেখা করার জন্য এ বিষয়ে তদন্ত করে ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  • 261
    Shares