বাঙ্গালীর স্বাধিকার আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রেখেছেন বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব–মোকতাদির

৮ আগস্ট, ২০২০ : ৪:৩৩ অপরাহ্ণ ৩৩২

তেপান্তর রিপোর্ট: বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেছেন- বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন বিজয়লক্ষী নারী। বাঙ্গালীর স্বাধিকার আন্দোলনে অনেকগুলো টানিং পয়েন্টে গুরুত্বপূর্ন সিদ্ধান্ত নিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সাহায্য করেছেন তিনি। ৬দফা,আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলা থেকে ফিরে আসা এবং ৭ই মার্চের ভাষনের ব্যাপারে ঐতিহাসিক ভূমিকা রয়েছে তার। সেকারনে বঙ্গবন্ধুর চেয়ে তার ভূমিকা কোন অংশেই কম নয়। একটি অজপাড়া গ্রাম থেকে উঠে এসে শেখ মুজিব যেমন জাতির পিতা হয়েছেন,তেমনি সেখান থেকে উঠে এসে একজন বালিকা বধু বঙ্গজননীতে পরিনত হন। আজকে ৮ই আগষ্ট তার জন্মদিনে আমি তার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানায়।
শনিবার দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ সাংবাদিকদের জন্যে বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যান ট্রাষ্ট থেকে দেয়া আর্থিক অনুদানের চেক বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন। মোকতাদির চৌধুরী বলেন-আওয়ামীলীগ যখন প্রথম ক্ষমতায় আসে তখনই সাংবাদিকদের কল্যানে উদ্যোগ নেয়া হয়। এজন্যে সেসময় ৫০ লাখ টাকাও দেয়া হয়েছিলো। তখন এই উদ্যোগ গ্রহনকারীদের মধ্যে আমিও একজন ছিলাম। কিন্তু পরবর্তী সরকারের সময় তা আবার বন্ধ হয়ে যায়। আওয়ামীলীগ আবার ক্ষমতায় এসে সেটি চালু করে। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে সারাদেশে সাংবাদিকরা যে কষ্টে আছেন তা ভুলে যায়নি সরকার। এই আর্থিক প্রনোদনা তাদের উপকারে আসবে। সাংবাদিকরা সত্য ও সুন্দরের পূজারী হয়ে সত্যিকার অর্থেই ফোর্থ ষ্ট্যাট হিসেবে কাজ করবেন বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। জেলার ৪০ জন সাংবাদিককে এই আর্থিক প্রনোদনা দেয়া হয়। প্রেসক্লাব আহবায়ক খ আ ম রশিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তৃতা করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আল মামুন সরকার,প্রবীন সাংবাদিক মো: সাদেকুর রহমান। প্রেসক্লাবের আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব দীপক চৌধুরী বাপ্পীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রেসক্লাবের আসন্ন নির্বাচন প্রসঙ্গে কথা বলেন জেলা আওয়ামীলীগের শীর্ষ দুই নেতা। জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেন- প্রেসক্লাবে ব্যাক্তিগতভাবে আমার অনেক পছন্দের মানুষ আছে। কিন্তু নির্বাচনে আমার পছন্দ-অপছন্দের প্রকাশ ঘটবেনা সেটি আমি আল্লাহকে হাজির-নাজির রেখে বলছি। এটা এ্যাবসুলেটলি ক্লাব সদস্যদের ব্যাপার। কাকে ভোট দেবেন, না দেবেন সেটা আপনাদেরই চয়েজ। জেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আল মামুন সরকার বলেন-প্রেসক্লাব নির্বাচনে আমরা সরাসরি কোন প্রার্থীর পক্ষে যাবনা। প্রার্থী সিলেকশনের ক্ষেত্রেও আমাদের কোন পছন্দ থাকবেনা।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।