বাংলার ৬৮ হাজার গ্রামের তথ্য গুগলে যুক্ত করার কাজ করছেন “আলম কিবরিয়া”

১৫ আগস্ট, ২০২০ : ১০:৩৩ অপরাহ্ণ ৬৬৩

তেপান্তর রিপোর্ট: একটা সময় ছিল যখন মানুষ তথ্য খোঁজার জন্য বই পুস্তকের উপর নির্ভর ছিল। জ্ঞান অনুসন্ধানে বই এবং জ্ঞানী ব্যাক্তির সাহায্য নিতে হতো। কিন্তু বর্তমান তথ্য প্রযুক্তির এই যুগে অধিকাংশ মানুষ ইন্টারনেট নির্ভর হয়ে পড়েছেন। তথ্য বা জ্ঞান অনুসন্ধানে ব্যাবহার করছে গুগল সহ বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন। তথ্য প্রয়োজন হলে সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করলেই নির্দিষ্ট তথ্য মহূর্তে চলে আসছে। ফলে যেকোন তথ্য এখন হাতের মুঠোই। কিন্তু বালাদেশের গ্রাম বা প্রত্যন্ত অঞ্চলের কোন তথ্য চেয়ে গুগলে সার্চ করলে তা বেশির ভাগ ক্ষেত্রে পাওয়া যায়না। তাই দেশের সকল গ্রামের তথ্য নিয়ে কাজ করছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরের ছেলে আলম কিবরিয়া।

আজকাল বইয়ের পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায় তথ্য খোঁজে সময় ব্যয় না করে ইন্টারনেটের মহা তথ্য ভান্ডারে মিলছে প্রত্যাশিত তথ্য। আর এই ব্যাবহার দিন দিন বেড়েই চলছে। সেই সাথে বাড়ছে তথ্য অনলাইনে যোগান দেওয়ার প্রতিযোগিতাও। ইন্টারনেট তথা সার্চ ইঞ্জিনে পর্যাপ্ত তথ্য রাখার প্রচেষ্টায় কাজ করছে বহু ওয়েবসাইট। পৃথিবীতে বহু ওয়েবসাইট রয়েছে যা গুগল সহ বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিনকে তথ্য যোগান দিয়ে থাকে। তেমনই একটি ওয়েবসাইট হলো “আমার গ্রাম” www.amargram.xyz যেটা বাংলাদেশের ৬৮ হাজার গ্রামের তথ্যের যোগান দিবে।

আমার গ্রাম” ওয়েবসাইটটির প্রতিষ্ঠাতা আলম কিবরিয়া জানান, বাংলাদেশে বহু ওয়েবসাইট থাকলেও বাংলাদেশের গ্রাম নিয়ে কোন তথ্যবহুল ওয়েবসাইট ছিল না। যেই কারনে গুগল সহ কোন সার্চ ইঞ্জিনে বাংলাদেশের গ্রামের তথ্য তেমন একটা পাওয়া যায় না। যেটা বর্তমান প্রযুক্তির যুগে একদম মানা যায় না। তাই তিনি দীর্ঘদিন যাবত সময় ব্যয় করে তৈরি করেন বাংলাদেশের সব চেয়ে বড় ক্যাটাগরির ওয়েবসাইট। যেখানে এক একটি ইউনিয়ন যেন এক একটি ক্যাটাগরি । এই ওয়েবসাইটে মোট ৫৪৬৬ টি ক্যাটাগরি রয়েছে। প্রতিষ্ঠাতার দাবী এইটাই বাংলাদেশের প্রথম সবচেয়ে বড় ক্যাটাগরির ওয়েবসাইট যা গীনিজ বুকে নাম লিখতে সক্ষম হবে।

বাংলাদেশের জেলা, উপজেলা, পৌরসভা এবং ইউনিয়নের নাম গুলো ইউকিপিডিয়া এবং ইন্টারনেটে বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা স্থান থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। সেগুলো জেলা, উপজেলা এবং পৌরসভা-ইউনিয়ন ভিত্তিক যুক্ত করেন। বাংলাদেশের জেলা গুলো মূল ক্যাটাগরিতে, উপজেলা গুলো সাব ক্যাটাগরিতে এবং পৌরসভা-ইউনিয়ন গুলো চাইল্ড ক্যাটাগরিতে সাজানো হয়েছে। যেন যে কেউ খুব সহজেই জেলা, উপজেলা, পৌরসভা-ইউনিয়ন ভিত্তিক প্রত্যাশিত গ্রামের তথ্য জানতে পারবে, পাশাপাশি তথ্য হালনাগাদও করতে পারবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।