‘ইমু সেক্স’র টার্গেটে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীরা, ব্ল্যাকমেইলের শিকার অনেকে

৩১ অক্টোবর, ২০১৯ : ১:৩৯ অপরাহ্ণ ৯৪৯৬

ফেইসবুকে স্ট্যাটাসের স্ক্রিনর্শট

সীমান্ত খোকন: মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের নানা সমস্যার মধ্যে নতুন যুক্ত হয়েছে কথিত ‘ইমু সেক্স’। তবে এই সমস্যাটা একটু ভয়াবহ বলা চলে। কারন, এর ফাদে ফেলে ব্ল্যাকমেইলের মাধ্যমে প্রবাসীদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেওয়া হয় মোটা অঙ্কের টাকা। ফলে অনেক প্রবাসী এখন সহায় সম্বল হারিয়ে নিঃশ্ব হওয়ার পথে।

সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়, কোন একটি বাংলাদেশী মেয়ের আইডি থেকে প্রবাসীদের ফেইসবুক আইডিতে ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠানো হয়। ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট গ্রহন করার পর ইনবক্সে মোবাইল নম্বরসহ ইমু বা হোয়াসট্স এ্যাপে সেক্স করার জন্য অফার করে মেসেজ পাঠানো হয়। সেই মেসেজে লিখা থাকে কিভাবে ভিডিও কলে সেক্স করতে হবে,এর বিনিময়ে কত টাকা দিতে হবে ও সকল নিয়ম কানুন। দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকা অনেকে টাকার বিনিময়ে এসবে যুক্তও হোন। যখন ভিডিও কলে তাদের অশোভন কথাবার্তা ও অঙ্গভঙ্গী হয় তখন অপর প্রান্তে সেই ভিডিও রেকর্ড করে মেয়েটি। এক পর্যায়ে মোটা অঙ্কের টাকা দাবী করে বসে মেয়েটি। টাকা না দিলে সেই ভিডিও তার পরিবারের কাছে পাঠানো ও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। তখন বাধ্য হয়েই সেই প্রবাসী টাকা দিয়ে মুক্তি চান।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে সৌদি আরবে বাস করা এমনই এক ভোক্তভোগী এই প্রতিবেদকের কাছে জানিয়েছেন, আজ থেকে ২ বছর আগে তিনি এরকম এক মেয়ের খপ্পরে পরেছিলেন। তাদের মধ্যে ভিডিও কলে ভাব আদান প্রদান হতো। প্রথম কিছুদিন সবকিছু ঠিক-ঠাক চললেও কিছুদিন পর হঠাৎ মেয়ে তার আচরন পরিবর্তন করে ফেললো। সে হঠাৎ এই প্রবাসীর কাছে ৫০,০০০ হাজার টাকা দাবী করে বসলো। যদি এই টাকা না দেওয়া হয় তাহলে সেই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হয়। এই ভাবে তার কাছ থেকে ৫০,০০০ টাকা করে চার বারে মোট ২ লক্ষ টাকা নিয়েছে। তিনি জানান, তার এক পরিচিতও এরকম সমস্যায় পরেছিল। তিনি মোট ৫ লক্ষ টাকা দিয়ে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেয়েছেন।
অনুসন্ধানে আরো জানা যায়, প্রবাসী ভিত্তিক যে ফেইসবুক গ্রুপ আছে সেই গ্রুপগুলোর মেম্বারদের টার্গেট করেই মূলত ফ্রেন্ড রিকোয়েষ্ট পাঠানো হয়। রিকোয়েষ্ট গ্রহন করার পরই শুরু হয় ছেলে পটনোর কাজ। মেয়েগুলোর ফেইসবুক আইডিগুলোর টাইমলাইনে ঢুকলে দেখা যায় বিভিন্নরকম যৌনতার প্রস্তাব দিয়ে পোষ্ট করা। এসব বিষয়ে ফেইসবুকে পেজও আছে।
সম্প্রতি সামিনা ইয়াসমিন রিয়া নামে এই প্রতিবেদকের ফেইসবুক আইডিতে রিকোয়েষ্ট আসে। রিকোয়েষ্ট গ্রহন করার পর ইনবক্সে যৌনতার অফার করে মেসেজ দেওয়া হয়। মেসেজ দেখে তাদের অশিক্ষত বা অল্পশিক্ষিতই বুঝা যায়।

সেই মেসেজটি হুবহু তুলে দরা হলো:

‘হলেো ভাইয়া আপনার জন্য সুখবর।আমি ৩,০০০ টাকা ১৫ দনি ইমু হোয়াটস এপে ওসড় ধহফ ডযধঃংধঢ়ঢ় এ খওঠঊ সরাসরি মোবাইলে ভডিওি কলে সক্সে কর।িকাজ শুরু করার আগে আপনাকে ২০০০ টাকা আগে অগ্রমি অফধাধহপব দয়িে তারপর ভডিওি কলে সক্সে করতে হব।েআপনার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বর্পূন ২০০০ টাকা এক পয়সা নচিে বকিাশ ছাড়া কাজ করা হয় না।এমন কি কোনো অযথা ভডিওি কল বা অডওি কলে কথা বলা হয় না।বাকি ১০০০ টাকা আপনি ১৫ দনি পর পরশিোধ করে দয়িে কাজ শষে করতে হব।েআমার কাজ আপনার কাছে ভালো লগেে গলেে ১০০০ টাকা দবিনে।কাজ ভালো না লাগলে ১০০০ টাকা দবিনে না।আপনি প্রতদিনি ৪ বার কাজ করতে পারবনে।প্রতদিনি ইমু ভডিওি সক্সে কলে ৪০ মনিটি করে দনিে চার বার করে ২ ঘণ্টা ৪০ মনিটি মোট ১৬০ মনিটি কাজ করতে পারব।েআমার সাথে কাজ করতে চাইলে সরাসরি ইমুতে মসেজে করনে।ভডিওি কল দয়িে সরাসরি মসেজে দয়িে আমাকে বলনে আমি আপনার সাথে কাজ করতে চাই।অযথা ভডিওি কল দয়িে ব্লক করা হব।ে আপনি কাজ করার জন্য প্রতারতি হবে না।আমি আত্বঃবশ্বিাস নয়িে কাজ কর।িআমি ধোকা প্রতারণা নয়িে কাজ করি না।কোনো ভন্ড প্রতারক শ্রনেি লোকদরে সাথে কাজ ও করি না। কারন আমি নজিে এই ব্যবসা করে সামান্য র্অথ রোজগার করে চল।িগরবিরে পটেে ধোকা প্রতারণা করে লাথি মারবনে না।আমি আপনার নজিরে বোনরে মত।টাকা দবিনে কাজ করবনে। অযথা কাজ করি না ২০০০ টাকা এক পয়সা নচিে কাজ করি না।আমার সাথে কাজ করতে চাইলে সরাসরি ইমুতে মসেজে করনে আমি কাজ করব।ভডিওি কল দবিনে না।আপনার আশপোশে বন্ধুদরে আমার ইমু নাম্বার দয়িে শয়োর করুন।ইমু নাম্বার সব সময় আমাকে পাওয়া যাব।ে আমি সব ধরনরে কলা বগেুন হাতরে আংগুল নারকিলে তলে দয়িে সরাসরি সক্সে পানি বরে করে বরে করা হব।েআর নয় হতাসা।আপনি যভোবে কাজ করে খুশি হবনে সভোবে কাজ করব আমি ১০০% নশ্চিয়তা দচ্ছি।ি সত্যি মন থকেে কাজ করতে চাইলে সরাসরি ইমু নাম্বার মসেজে দয়িে যোগাযোগ করুন।অযথা কোন রাস্তার ফকরি প্রতারক মথ্যিাবাদি সন্তাস যোগাযোগ করবনে না।যাদরে টাকা আছে আমাকে টাকা দয়িে চুদতে চাই।তারা আমার সাথে যোগাযোগ করবনে।আমার প্রতারক শ্রনেীকে অনুরোধ করছ।িআপনারা দূরে থাকুন।অযথা কোনো মসেজে কল দবিনে না।আমি বাকি কাজ করি না।অনকে কষ্ট করে কাজ করি ইমো ভডিওি কল।েসরাসরি নংেটা হয়ে আমার কাপড় খোলে আমার বোদা ভতিরে আংগুল ঢুকয়িে দয়িে মাল বরে করে ইমো কলে সরাসরি ভডিওি সক্সে করি আম।িআপনার হৃদয় সত্যি মন থকেে কাজ করতে চাইলে সরাসরি যোগাযোগ করুন।অযথা কোনো যোগাযোগ করবনে না। আপনি নজিে ইমো ভডিওি কলে সক্সে খওঠঊ এ টাকার জন্য কাজ করতে না পারল।েআপনি ২ টা ঈঁংঃড়সবৎ আমাকে তাদরে কাছে থকেে ২০০০ টাকা নয়িে দতিে পারলে আপনি নজিে ১৫ দনি ফ্রি ইমো ভডিওি কলে খওঠঊ ভডিওি সক্সে করতে পারব।েআপনার কোন টাকা লাগবে না সম্পূন কাজ ফ্র।িআপনার যাদরে বন্ধুরা আছে খওঠঊ ভডিওি কলে সক্সে করতে পাগল সবার কাছে আমার ঝবী ওসড়/ডযধঃংধঢ়ঢ় নাম্বার পাঠয়িে দনি।একটা কথা অবশ্যই আপনার জন্য গুরুত্বপূণ ২০০০ টাকা সারা কখনো কাজ করা হবে না।যারা খওঠঊ ভডিওি কলে সক্সে করতে চাও তারা আমার সাথে যোগায়োগ কর।আমি তুমার সব সময় পাশে আছি সব সময় থাকব ২৪ ঘণ্টা দনি রাত।আমার ওসড়/ডযধঃংধঢ়ঢ় নাম্বার সবার কাছে শয়োর করে পৌঁছে দাও যারা কাজ করতে চাই আমার সাথ।েআমার সাথে মসেজে দয়িে সরাসরি ইমু তে ভডিওি কল দনি।আমি শুধু ইমুতে ২৪ ঘন্টা থাক।িমসেঞ্জোর মসেজে রপ্লিে করি না।এখনি ইমু তে অ্যাড সব সময় মসেজে দয়িে কথা বলো।আমার পারসোনাল ইমু নাম্বার। ইমো নাম্বার/হোয়াটস -অ্যাপ ইমু নাম্বার :…।

তবে এই বিষয়ে এরকম একাধিক মেয়ের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু তারা এবিষয়ে সংবাদমাধ্যমে কোন কথা বলতে রাজী হয়নি।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।