করোনা উপেক্ষা করে ফুটবল টুর্নামেন্ট: হাজারো মানুষের ঢল

১৭ অক্টোবর, ২০২০ : ১১:১৭ অপরাহ্ণ ১৪৭

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার নাটাই দক্ষিন ইউনিয়নের শালগাঁও-কালিসীমার ঈদগাঁ মাঠে মহামারি করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সময়েও ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার উপজেলার নাটাই দক্ষিন ইউনিয়নে ফুটবল টুর্নামেন্ট আয়োজন করে “শালগাঁও কালিসীমা ঐক্য পরিষদ” নামের একটি সংগঠন।

জানা গেছে, করোনার মধ্যেও ফুটবল টুর্নামেন্টে বিভিন্ন ইউনিয়নের কয়েক হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। মানা হয়নি স্বাস্থ্যবিধিও।
এ কারণে উপজেলায় করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে গেল বলে মনে করছেন অনেকে।

নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের একজন বাসিন্দা জানান, করোনা মহামারিতে এ ধরনের আয়োজন করা ঠিক হয়নি। এতে উপজেলাবাসী করোনা ঝুঁকির মধ্যে পড়লেন।
স্বাস্থ্যবিধি না মেনে এত টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হওয়ায় সচেতন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে উপজেলার মধ্যে এত বড় টুর্নামেন্টের বিষয়ে অবগত নয় বলে জানিয়েছে সদর উপজেলা প্রশাসন।

ফুটবল টুনামেন্ট দেখতে উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত হতে কয়েক হাজার দর্শক উপস্থিত হন। তাদের অনেকেই মাস্ক পরেননি। সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত না করেই গাদাগাদি করে একে অপরের পাশে দাঁড়িয়ে খেলা উপভোগ করেন হাজারও মানুষ।

শালগাঁও কালিসীমা ঐক্য পরিষদের সভাপতি বাবুল মিয়ার সভাপতিত্বে টুর্নামেন্টে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ।
কয়েক ঘণ্টাব্যাপী চলা এ খেলা শেষে সন্ধ্যায় পুরস্কার বিতরণ করা হয়।

করোনার উচ্চমাত্রার ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও খেলার আয়োজন প্রসঙ্গে শালগাঁও কালিসীমা ঐক্য পরিষদের সভাপতি বাবুল মিয়ার বলেন,বিষয়টি আমার পুরোপুড়ি জানা ছিলনা। প্রশাসনের অনুমতি না নিয়েই এটি করা হয়েছে। তবে আজকে ফাইনাল খেলা হয়ে গেছে। আর এমন ভুল হবেনা।

এ বিষয়ে ব্রাহ্মণিাড়িয়া সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পঙ্কজ বড়ুয়া জানান, ফুটবল টুনামেন্টের খবর তিনি জানেন না। যারা এই করোনাকালেও এমন আয়োজন করেছে খোঁজ নিয়ে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  • 51
    Shares