বিমানবন্দরে ৩ ঘণ্টা হয়রানীর পর প্রবাসীর লাশ পেলো পরিবার

৬ নভেম্বর, ২০১৯ : ৪:০৯ অপরাহ্ণ ২১৮

মোঃ আব্দুল হান্নান: সংসারের অভাব গোছাতে পেটের দ্বায়ে জর্ডান পাড়ি দিয়েছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাপরতলা ইউনিয়নের খান্দুরা গ্রামের অনুফা। কিন্তু জর্ডানে নির্যাতিত হয়ে কাজ বদলাতে গিয়ে অবৈধ বলে ধরা খেয়ে দীর্ঘদিন জেলে থেকে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা যায় অনুফা! তাকে দেখতে গিয়ে তার বোনও বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছেন বলে অনুফার পরিবার সূত্রে জানা গেছে।
কিন্তু অনুফার লাশ দেশে ফেরৎ দেওয়ার শর্তে প্রবাসী কল্যান ভবনের কিছু অসাধু ভাটপার, প্রতারক,দালাল অনুফার মারা যাওয়ার খবরটি জানিয়ে তার পরিবারের নিকট ৬০ হাজার টাকা দাবী করে। তাদের দাবীকৃত টাকা নিয়ে ঢাকায় আসলে লাশের ব্যাবস্থা করবে বলে জানায় প্রতারক চক্র। এদিকে অনুফার বাবা মিয়া হোসেন নাসিরনগরের সাবেক এমপি সৈয়দ মুর্শেদ কামালের ছোট ছেলে সৈয়দ সাজ্জাদ মোর্শেদ সোহানকে বিষয়টি জানান। খবর পেয়ে সৈয়দ সাজ্জাদ মোর্শেদ সোহান জনৈক দালাল সাদেকের মোবাইল নাম্বারে যোগাযোগ করলে প্রতারকরা বিভিন্ন উল্টাপাল্টা কথা বলে। সৈয়দ সাজ্জাদ মোর্শেদ সোহান আজ বুধবার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে গিয়ে লাশ আনতে গিয়ে দীর্ঘ্ক্ষণ দেন-দরবার শেষে বিশেষ প্রক্রিয়ায় প্রায় ৩ ঘণ্টা লাশ আটক থাকার পর দালালের খপ্পর থেকে উদ্ধার করে গ্রামের বাড়ীতে পাঠানোর ব্যাবস্থা করেন ।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।