স্বার্থান্বেষী মহল নিজেরা দখল করে আশ্রয়হীনদের মাথা গোঁজার ঠাঁই বিনষ্ট করতে দেওয়া হবেনা

২৮ নভেম্বর, ২০২০ : ৫:২৯ অপরাহ্ণ ৫৪৭

মো. সফর মিয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ নবীনগরের সাংসদ মোঃ এবাদুল করিম বুলবুল বলেছেন, পুরো নবীনগরে ৪৮৫ টি অসহায় গরীবদের মাথা গোঁজার ঠাঁই প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্প করে দেয়ার জন্য ইতিমধ্যে সকল ইউনিয়ন চেয়ারম্যানদের কে নিয়ে বৈঠক করা হয়েছে।

আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর গুলো সুন্দর ও সফলভাবে বাস্তবায়ন করার লক্ষে ইতিবাচক সাড়াও পাওয়া গেছে। বিটঘরে দানবীর মহেশ ভট্টাচার্যের রেখে যাওয়া মূল্যবান সম্পতিকে সরকারের ১ নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত করে সেখানে গৃহহীনদের জন্য ঘর তৈরি হচ্ছে এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে এমপি বুলবুল বলেন, বিটঘর সম্পর্কে যে ধূম্রজাল সৃষ্টি করা হচ্ছে,আমি ব্যক্তিগতভাবে অনেকের সাথে কথা বলেছি ।

এলাকাবাসীর অভিযোগ মহেশ ভট্টাচার্যের সম্পতিতে গৃহহীনদের জন্য ঘর করা হচ্ছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সাংসদ আরো বলেন, এই জমিটি এতোদিন অন্যদের দখলে ছিলো। তাদেরকে অপসারণ করে এখানে গৃহহীনদের জন্য ঘর তৈরি করা হচ্ছে। এবং মহেশ বাবুর আরও অসংখ্য জায়গা অনেকেই লিজ নিয়ে ব্যবহার করছে। সুতরাং এটাকে ইস্যু বানিয়ে একটি স্বার্থান্বেষী মহল নিজেরা দখল করে আশ্রয়হীনদের মাথা গোঁজার ঠাঁই বিনষ্ট করবে সেটি দেওয়া হবেনা। এখানেই আশ্রয়ন প্রকল্পের কাজ গুলো পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করা হবে। ইতিমধ্যে এ কাজের ৭০ পার্সেন্ট সম্পন্ন হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ইকবাল হাসান জানান,এটা কোন ব্যক্তি মালিকানা জায়গা নয়, সরকারের ১নং খাস খতিয়ান ভুক্ত জায়গা। ৩০ বছর আগেই মালিকবিহীন সম্পত্তি মাঠ জরিপে সরকারের ১নং খাস খতিয়ান রেকড ভুক্ত হয়েছে। আশ্রায়ন প্রকল্পের আশেপাশে মহেশ বাবুর নামে যত জায়গা আছে খুব দ্রুত প্রশাসনের সহায়তায় অভিযান চালিয়ে সেগুলো উদ্ধার করা হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।