নবীনগরে এমপির মীমাংসার পরেও প্রতিপক্ষের গ্রামে প্রবেশ নিয়ে ধুম্রজাল

১৯ ডিসেম্বর, ২০২০ : ৭:৪৪ অপরাহ্ণ ১৯৫

মো. সফর মিয়া: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের সাহেবনগর গ্রামে গত ৩রা জুন আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সাহেবনগর গ্রামের রিপন মিয়া ও নান্নু মিয়া গ্রুপের লোকজনের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ছঁড়া গুলির আঘাতে গুরুতর আহত হানিফ মিয়া ৩০ জুন ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।এ ঘটনায় ৫২জনকে আসামি করে মামলা করা হয়।

এদিকে নবীনগরের দাঙ্গা নিরসনের লক্ষ্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য এবাদুল করিম বুলবুল ও সাবেক এমপি ফয়জুর রহমান বাদলের গঠিত দাঙ্গা নিরসন কমিটি একাধিকবার সাহেবনগর গ্রামে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরেজমিন পরিদর্শন করে উঠান বৈঠক করেন।

অবশেষে আজ শনিবার সকালে গ্রামে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে স্থানীয় ডাকবাংলোয় সাহেবনগর গ্রামের লোকজনদের কে নিয়ে সাংসদের উদ্যোগে দাঙ্গা নিরসন কমিটির সকল নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে সমঝোতা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ওই সভা থেকে গ্রামের শান্তিপূর্ণভাবে বসবাস করার জন্য উভয় পক্ষের লোকজনদেরকে নির্দেশ দেন এমপি এবাদুল করিম বুলবুল। এরই প্রেক্ষিতে দুপুরে নান্নু মিয়া গ্রুপের লোকজন গ্রামে ফেরার লক্ষ্যে জড়োসড়ো হয়ে এলাকায় প্রবেশ করতে যান।

অন্যদিকে এ খবরে গ্রামে অসংখ্য মানুষ জড়ো হয়। এই নিয়ে শুরু হয় ধুম্রজাল।
নান্নু মিয়া গ্রুপের পক্ষের লোকজন জানান, ৫২ জনকে আসামি করে যে মামলাটি করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫১ জন মামলায় জামিন পেয়েছেন। আসামী সহ তাদের পরিবারের কাউকে গ্রামে ঢুকতে দিচ্ছেন না রিপন মিয়ার গ্রুপের লোকজন।অন্যদিকে রিপন মিয়ার গ্রুপের লোকজন জানান প্রতিপক্ষের সবাই গ্রামে প্রবেশ করতে পারলেও যারা মামলার আসামি তাদেরকে গ্রামে ঢুকতে দেওয়া হবে না, কারন তারা গ্রামে ঢুকলে আবার গ্রামে দাঙ্গা-হাঙ্গামা এবং বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হবে। তবে শ্যামগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আমির হোসেন বাবুল জানান,এমপির নির্দেশে বাদী পক্ষের লোকজন গ্রামে প্রবেশের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছে। জানা যায় গ্রামের তিন দিকের রাস্তা বাদী পক্ষের লোকজন ঘেরাও করে রেখেছেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুল মুঠোফোনে জানান আইন চলবে আইনের গতিতে গ্রামে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে যে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

  • 30
    Shares