এখন থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ দাফন করবে মানবিক সংঘঠন ‘স্বজন’

৩ জানুয়ারি, ২০২১ : ২:২১ পূর্বাহ্ণ ৭২৭

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়া অজ্ঞাত ব্যক্তির দাফনকাজ সম্পূর্ণ লক্ষ্যে ‘স্বজন নামে একটি মানবিক সংগঠনের আত্নপ্রকাশ হয়েছে।

শনিবার (২রা জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ‘স্বজন’ এর প্রতিষ্ঠাতা উদ্যোক্তা জহিরুল ইসলাম জুম্মান মুঠোফোন নিশ্চিত করেন।

শনিবার বিকেলে হাসপাতাল চত্ত্বরে জেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী বিপি হাসান সারোয়ারকে ‘স্বজনের’ প্রধান উপদেষ্টা করে ৭ সদস্যে বিশিষ্ট কমিটির আত্নপ্রকাশ হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সৈনিকলীগের সভাপতি ও এম্বুলেন্স মালিক সমিতির নেতা জহিরুল ইসলাম জুন্মানকে প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান উদ্যোক্তা ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এড. মাসুম বিল্লাহ্কে প্রধান কার্যনির্বাহী সদস্য পদে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

‘স্বজন’ এর কার্যনির্বাহী সদস্যরা হলেন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন, স্বাধীকার নিউজের সম্পাদক ও প্রকাশক আসাদুজ্জামান আসাদ ও দৈনিক যায়যায়কালের জেলা প্রতিনিধি ইঞ্জিনিয়ার মো. আজহার উদ্দিন।

অজ্ঞাত ও পরিচয়হীন মৃত মানুষের স্বজন হয়ে পাশে থেকে দাফনকাজ সম্পূর্ণ করা লক্ষ্যে ‘স্বজন’ নামের মানবিক সংগঠনের এ সার্বিক কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল মর্গে আসা লাশগুলোর মধ্যে অজ্ঞাত ও পরিচয়হীন যে লাশ থাকবে ঐ লাশের কবর কুড়া-গোসল, কাফনের কাপড় থেকে শুরু করে জানাযার পর কবরস্থানে দাফন সম্পূর্ণ করা পর্যন্ত কাজটি করবে ‘স্বজন’ নামের এ মানবিক সংগঠন।।

জহিরুল ইসলাম জুম্মান জানান, অজ্ঞাত ও পরিচয়হীন ব্যক্তির লাশ এম্বুলেন্স দিয়ে করবস্থান পযর্ন্ত নেওয়াসহ লাশ দাফন করা পযর্ন্ত যাবতীয় কাজ এই সংগঠনের পক্ষ্য থেকে করানো হবে।

তিনি আরও জানান, কোন অসহায় ও হতদরিদ্র রোগী টাকার অভাবে যদি ঢাকা নিয়ে চিকিৎসা না করাতে পারে, তাহলে ওইসব রোগীর যাতায়াত খরচ বাবদ এম্বুলেন্স ভাড়া “স্বজন” সংগঠন পক্ষ্য থেকে বহন করা হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।