গরীব ও অসহায় শীতার্তদের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেছে “শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠন”

১৫ জানুয়ারি, ২০২১ : ৯:১০ অপরাহ্ণ ১০৮৬

তেপান্তর রিপোর্ট: আশুগঞ্জের শরীফপুর গ্রামে ১৩০ জন গরীব ও অসহায় শীতার্ত মানুষের মধ্যে কম্বল বিতরণ করেছে সামাজিক সংগঠন “শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠন”। শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৩টায় শরীফপুর বাজারে (শের আলী মার্কেট) এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই কম্বল বিতরণ সম্পন্ন করা হয়।

গ্রামের সাবেক মেম্বার ও শালিসকারক আবু সাঈদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসীদের অভিভাবক মোসলেম মিয়া, হাজ্বী মোঃ মস্তূ মিয়া, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব, ফিরুজ মিয়া,মাওলানা ইলিয়াস, জিয়াউর রহমান,হাজ্বি জাহের মিয়া, নোয়াব মিয়া, হোসেন মিয়া, জাকির মিয়া, মানিক মিয়া, মহন মেম্বার এবং মোঃ ইসমাইল হোসেন।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মাসুদুল হক, শিহাব উদ্দিন ও এহসানুল হক।

অনুষ্ঠানে প্রবাস থেকে এক বার্তার মাধ্যমে বক্তব্য জানিয়েছেন শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের সভাপতি জালাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক পারভেজ ফারুকী ও সাংগঠনিক সম্পাদক সুজন মাহমুদ।

এসময় শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের শুভ উদ্ভোধন উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন আশিকুল ইসলাম।

এই সময় অনুষ্ঠানের সভাপতি আবু সাঈদ “শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠন”র অফিস উদ্বোধন করেন এবং দক্ষিণ পাড়া বাইতুস শরীফ জামে মসজিদের ইমাম সাহেব মিলাদ ও দোয়া করার পর কম্বল ও তাবারক বিতরণের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

এবিষয়ে শরীফপুর প্রবাসী কল্যাণ সংগঠনের সভাপতি ও কুরিয়া প্রবাসী জালাল আহমেদ তেপান্তরকে বলেছেন, মূলত প্রবাসী ও তাদের পরিবারের বিপদে এই সংঘঠনটি কাজ করবে। এটাই হলো সংগঠনের মূল উদ্দ্যেশ। এছাড়াও গ্রামের সামগ্রীক উন্নয়ন ও যেসব গরীব পরিবারের মেয়েদের বিয়ে দিতে সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় তাদেরকেও সাহায্য করা সংগঠনের উদ্দ্যেশ।
প্রায় সময় দেখা যায়, বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীরা কোন দূর্ঘটনায় আহত, নিহত বা যেকোন কারনে মৃত্যু বরন করেছেন। তখন টাকার জন্য তাদের লাশ দেশে আনতে জটিলতা তৈরি হয়। এবং তখন তাদের পরিবারও মারাত্নক আর্থিক সঙ্কটে পড়ে। আমরা ঠিক এই জায়গাটায় কাজ করবো, যাতে করে মৃত প্রবাসীর লাশ দেশে আনতে কোন টাকার সমস্যা না হয় এবং পরবর্তীতে তাদের পরিবার যেন কোন অভাবের তার নায় কষ্ট করতে না হয়।
এরকম বেশ কিছু ঘটনা আমি নিজে উপলদ্ধি করার পর এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।