নবীনগরে মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ : ৫:২০ অপরাহ্ণ ২৩১

মো. সফর মিয়া: ১৯৭১ সালে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে দেশ মাতৃকার টানে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাত থেকে এই দেশকে মুক্ত করতে নিজের জীবন বাঁজি রেখে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন যে সকল মুক্তিযোদ্ধারা, উনাদের বেসামরিক গেজেট যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

রোববার ব্রা‏হ্মণবাড়িয়ার নবীনগর পৌরসভার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বেসামরিক গেজেট যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্টিত হয়েছে। আগামী বুধবার পর্যন্ত তালিকা অনুযায়ী পুরো উপজেলার বীরমুক্তিযোদ্ধাদের বেসামরিক গেজেট নিয়মিত করার লক্ষে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণ সংক্রান্ত যাচাই-বাছাই শেষ করে এর প্রতিবেদন জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল বরাবর প্রেরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন বাচাই-বাছাই কমিটির সদস্য সচিবের দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী অফিসার একরামুল ছিদ্দিক।

উপজেলা পরিষদ মিলায়তনে বীরমুক্তিযোদ্ধা মোশাররফ হোসেন এর সভাপতিত্বে যাচাই-বাছাই কার্যক্রমে উপস্থিত ছিলেন, বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. আবুল কাশেম, বীরমুক্তিযোদ্ধা শেখ নূরুল ইসলাম ও উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. পারভেজ হোসেন।

সরেজমিনে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ঘুরে দেখা যায়, নোটিশ বোর্ডে সাটানো তালিকায় নিজের নাম রয়েছে কিনা খুঁজে দেখছেন স্থানীয় একাধিক বীরমুক্তিযোদ্ধা। এসময় উনারা আক্ষেপ করে বলেন, কিসের যাচাই-বাছাই? মাঝখান থেকে সঠিক মুক্তিযোদ্ধা আর ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সব একটা লাড়া পইরা গেছে, সবাই দৌড়া-দৌড়ি করতাছে।

এক্ষেত্রে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে অমুক্তিযোদ্ধারা মিসে যাওয়ার সঙ্কায় ভুগছেন তাঁরা।
সঠিক যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে প্রকৃত বীরমুক্তিযোদ্ধাদের নাম প্রকাশ করবে সরকার এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।