ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সিএনজিতে “যাত্রীবেশে ছিনতাইকারী” আটক

১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ : ১১:২৬ পূর্বাহ্ণ ৪৭৭

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় যাত্রীবেশে সিএনজিতে ছিনতাইয়ের চেষ্টাকালে জুয়েল(২২) নামের একজন সিএনজি চালককে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার(১৩ ফেব্রুয়ারী) রাত সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট-কুমিল্লা মহাসড়কের পীরবাড়ি নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

আটক সিএনজি চালক জুয়েল সদর উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের উরশীউড়া গ্রামের রাজ্জাক মিয়ার ছেলে।

অন্যদিকে আহত নাছির মিয়া সদর উপজেলার শ্যামপুর গ্রামের ইউনুছ মিয়ার ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাত ৮টা নাগাদ কাউতলী বাসস্ট্যান্ড হতে নাছির মিয়া নামের এক ব্যক্তি একটি ভাড়ায় চালিত সিএনজিতে যাত্রী হিসেবে ওঠে। পরে পুনিয়াউট থেকে আরোও দুইজন যাত্রী ওঠেন। শহরের বিরাসার মোড় যাওয়ার পর আরো একজন সিএনজিতে ওঠার পর সিএনজির মধ্যে ছিনতাইকারীরা নাছিরকে হঠাৎ পেটুনি শুরু করেন৷ পরে তার কাছ থেকে মোবাইল সহ টাকা নিয়ে পালিয়ে যান ছিনতাইকারীরা।

নাছির মিয়া বলেন, যখন পীরবাড়ির কাছাকাছি যায়, তখন সিএনজি ড্রাইভারসহ চারজন লোক আমাকে হঠাৎ পেটুনি শুরু করেন৷ পরে আমার মোবাইল ও বিশ হাজার টাকা ছিনতাই করে যাওয়ার সময় ছুরিকাঘাতে তাকে রক্তাক্ত করে পালিয়ে যায়। অনেক চেষ্টার পর সিএনজির চালককে ঝাপটে ধরে আটক করেন নাছির।

ঘটনাস্থল থেকে ফারহান হোসেন নামের একজন জানান, আমি মোটরসাইকেলে সাড়ে ৯টা নাগাদ মেড্ডার দিকে যাচ্ছিলাম। পরে, পীরবাড়ি রোডের মাথায় যাত্রীর চিৎকার শুনে স্থানীয়দের সহায়তায় ওইখান থেকে নাছির নামের একজনকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করি। সিএনজির চালককে আটক করেছি। পরে, তাকে পুলিশে হাতে সোপর্দ করি।

এ বিষয়ে সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহিম মুঠোফোনে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ছিনতাইকারী সদস্য সন্দেহে সিএনজি চালককে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে সিএনজিটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। এব্যাপারে ছিনতাইয়ের অভিযোগে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।