যৌতুকের টাকার জন্য নির্যাতনের অভিযোগ, ঝুলন্ত অবস্থায় নববধূর লাশ উদ্ধার

৬ মার্চ, ২০২১ : ৯:৪৮ অপরাহ্ণ ৩৬১

তেপান্তর রিপোর্টঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুর জাকিয়া সুলতানা(১৮) নামের এক নববধূ বাবার বাড়িতে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে। গত বছর মালোশিয়া প্রবাসী সাথে বিয়ের পিঁড়িতে বসে এই তরুণী। তার স্বামী যৌতুকের টাকার জন্য নির্যাতন করার কারনে ওই নববধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (৫ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে বাঞ্ছারামপুর উপজেলার দড়িকান্দি ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামে বাবা’র বাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেন পুলিশ।

নিহত জাকিয়া সুলতানা ওই ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামে দক্ষিনপাড়ার মৃত মানিক মিয়ার মেয়ে।

নিহতের পরিবার জানায়, বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ছুলিমাবাদ ইউনিয়নের সাহেবনগর গ্রামের লেজন মিয়ার ছেলে মালোশিয়া প্রবাসী শফিকের সাথে উপজেলার দড়িকান্দি ইউনিয়নের দড়িকান্দি গ্রামের মৃত মানিক মিয়ার মেয়ে জাকিয়ার মোবাইলে ফোনের মাধ্যমে বিয়ে করেন। ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ায় গত ছয়মাস আগে শফিক দেশে ফিরেন। দেশে এসে সৌদি আরব যাবে বলে তার স্ত্রীর কাছে ২লক্ষ টাকা যৌতুক দাবি করেন। তারপর যৌতুকের টাকা দেওয়া, না দেওয়া নিয়ে দু-পরিবারের মধ্যে মনো-মালিন্য তৈরি হয়। শুক্রবার বিকেলে জাকিয়া তার বাবা’র বাড়িতে সবার অজান্তে ঘরের সিলিংয়ের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

নিহতের দুলাভাই আলাউদ্দিন দাবি করেন, জাকিয়া স্বামীর নির্যাতনের কারনে আত্মহত্যা করেছে। যৌতুকের টাকা নিয়ে শফিকের সাথে জাকিয়ার একাধিকবার বাকবিতন্ডা হয়েছিল।

এ ব্যাপারে বাঞ্ছারামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রাজু আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহতের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলেই মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।