স্বামী হত্যার মিমাংসার টাকা নিয়ে নিতে চায় দেবর, গৃহবধুর বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা

২২ এপ্রিল, ২০২১ : ৭:১০ অপরাহ্ণ ৪০১

মোঃ আব্দুল হান্নান: জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের কাঠালকান্দি গ্রামে দেবর ও শ্বশুর বাড়ীর লোকজনের অমানবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গৃহবধু বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। গত ২০ এপ্রিল সকালে চাতলপাড় ইউনিয়নের কাঠালকান্দি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

এই ঘটনায় গৃহবধুর ছেলে তপু আহম্মেদ বাদী হয়ে গৃহবধুর দুই দেবর মৃত আব্দুল শুক্কুরের ছেলে উমর শরিফ (৩৪) ও উমর ফারুক (৩৬) এর নামে নাসিরনগর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৭ বৎসর পূর্বে ওই গৃহবধুর স্বামী আলী আজম খুন হয়। পরে স্থানীয় সর্দার মাতাব্বরা মিলে ১৬ লক্ষ টাকার বিনিময়ে আসামীদের সাথে আপোষ মীমাংসা করে দেয়। ওই গৃহবধু ও আলী আজমের চারটি সন্তান রয়েছে। আলী আজমের খুনের পর তার ছোট ভাইয়ের সাথে ওই গৃহবধুর আবারো বিয়ে হয়। আলী আজমের খুনের মামলার বাদী ছিল ওই গৃহবধু। এখন তার দুই দেবর উমর শরিফ ও উমর ফারুক মিলে খুনের মামলার ধার্য্যকৃত টাকা নিয়ে যেতে চায়। তাতে ওই গৃহবধু রাজী না হলে তাকে প্রতিনিয়ত শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে শুরু করে।

ঘটনার দিনও দুই দেবর ও বাড়ীর লোকজন মিলে ওই গৃহবধুকে মারপিট করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে শক্ত ফোলা জখম করে এবং তার ঘর দরজা ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে থাকা বিভিন্ন আসবাবপত্র নিয়ে যায়। তাছাড়াও প্রতিনিয়ত ওই গৃহ বধুকে অশ্লীল গালিগালাজ সহ তাকে, তার ছেলে মেয়ে ও বর্তমান স্বামীকে খুন গুম করার হুমকি দেয়। তাদের অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে অবশেষে ঘটনার দিন ওই গৃহবধু ঘরে থাকা কীটনাশক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। পরে লোকজন তাকে দ্রুত নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে সেখানে চিকিৎসা দিয়ে কিছুটা সূস্থ করা হয়। হাসপাতালে গিয়ে দেখা হয় ওই গৃহবধুর সাথে। এ সময় তিনি তার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের বর্ণনা দিতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।