নবীনগরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত তাসলিমা বাচতে চায়

২৮ মে, ২০২১ : ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ ২৬৪

মোঃ সফর মিয়া, নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধিঃ  ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার জিনদপুর ইউনিয়নের মালাই গ্রামের দক্ষিণ পাড়া কাজী বাড়ির মোঃ গিয়াস উদ্দিনের দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া কন্যা তাসলিমা (১০)দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত।তার এক হাত ও এক পা কিছুটা অবস হওয়ার কারনে বর্তমানে হাটাচলা করতে কষ্টকর হয়ে পড়েছে ।এই দরিদ্র পরিবারের সন্তান তাসলিমার সুচিকিৎসার জন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন তার পরিবার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে জিনদপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন তাসলিমাকে সাহায্যের আবেদন জানিয়ে একটি স্ট্যাটাস দেয়।এরই সূত্র ধরে সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, তার শরীলে প্রতি মাসে এক ব্যাগ করে রক্তের প্রয়োজন হয়। পরিবারের পক্ষ থেকে প্রতি মাসে রক্ত সংগ্রহ করা খুব কষ্টকর হয়ে পড়েছে। তাকে বাঁচাতে গরিব অসহায় পরিবারের পক্ষ থেকে ধারদেনা করে ৩ লক্ষ টাকার মত খরচ করলেও তাসলিমার স্বাস্থ্যের কোনো উন্নতি না হওয়ায় পরিবারটি দিশেহারা হয়ে পড়ে।
এসম্পর্কে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত তাসলিমার মা ঝর্ণা বেগম বলেন,আমি আমার মেয়েকে বাঁচাতে চাই, ডাক্তার বলছে ভাল খাবার খাওয়াতে, ফল খাওয়াতে।আমার কাছে ঠিক মত ঔষধ খাওয়ানোর টাকা নাই,তার উপর আবার মাসে দুই বার রক্ত পরিবর্তন করতে হয়।যদি বিত্তবানরা আমার মেয়ের চিকিৎসার জন্য একটু সহযোগিতা করে তবে আমি আমার মেয়েকে বাঁচাতে পারব।
দুরারোগ্যে ব্যাধিতে আক্রান্ত তাসলিমা বলেন,আমি বাঁচতে চাই,আমি সবার মত হাটাচলা করে স্কুলে যেতে চাই। আমার চিকিৎসার জন্য একটু সহযোগিতা করুন। যে কেউ তাকে সহযোগিতা করতে চাইলে তার পরিবারের মুঠোফোন ০১৬৪৭৮২৫৯১৫(বিকাশ) নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।