ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রথম আলোর সাংবাদিককে মারধর

১ জুন, ২০২১ : ৬:৫২ অপরাহ্ণ ৬৮৮

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি মানববন্ধন চলাকালে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক শাহাদৎ হোসেনকে মারধর করা হয়েছে। মঙ্গলবার (০১ জুন) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনের প্লাটফরমের ভিতরে এ ঘটনা ঘটে। পরে সাংবাদিক সহকর্মীরা উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ব্রাহ্মণববাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও সাংবাদিক সহকর্মীরা জানায়, হেফাজতের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন চালুর দাবিতে মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় স্টশন চত্বরে মানববন্ধনের আয়োজন করে সচেতন ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসী। মানববন্ধনে ছাত্রলীগসহ বিভিন্ন সংগঠন অংশগ্রহণ করে। মানববন্ধন কাভার কররা জন্য অন্যান্যদের সাথে সাংবাদিক শাহাদৎও স্টেশন চত্বরে যান। হামলার শিকার সাংবাদিক শাহাদৎ হোসেন বলেন, স্টেশনের গেইট কিপার মুরাদুল ইসলামকে রোমান মারধর করেছে জানতে পেরে বিষয়টি আমি যুবলীগনেতা হাসান ভাইকে জানাই। তখন রোমান অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এক পর্যায়ে রোমান ও তার ভাই সৈনিক লীগের নেতা জুম্মান কিছু বুঝে উঠার আগেই মারধর শুরু করে। এবং এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মারতে থাকে। পরে সহকর্মীরা এসে আমাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় আমি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব। শাহাদতের মারধরে ঘটনায় জেলায় কর্মরত সাংবিকদের মাঝে ক্ষোভোর সঞ্চার হয়।

এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে সাংবাদিকরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাবে জড়ো হন এবং এ ঘটনার তীবো নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। সাংবাদিকরা রোমানের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবি জানান। এ দিকে ঘটনার খবর পেয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল, সাধারণ সম্পাদক শাহাদত হোসেন শোভনসহ নেতৃবৃন্দ প্রেস ক্লাবে এসে ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। হাসপাতালে দেখতে আসেন জেলা পুলিশ সুপার মো: আনিসুর রহমানসহ উধ্বর্তন কর্মকর্তারা। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অভিযুক্তদের আইনের আওতায় আনা হবে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।