ব্রাহ্মবাড়িয়ায় ৯ মোটরসাইকেল চোর আটক, মোটরসাইকেল উদ্ধার

৬ জুন, ২০২১ : ২:০৫ অপরাহ্ণ ২৬৩২

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৯ মোটরসাইকেল চোরকে আটক করেছে পুলিশ। গত ৫ জুন থেকে ৬ জুন পর্যন্ত সদরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে তাদেরকে আটক করেছে সদর থানা পুলিশ। এসময় চোরদের কাছ থেকে চোরি হওয়া ১১ টি মোটর সাইকেল, ২ লক্ষ ৭০ হাজার ৮০০ টাকা, ১০ টি মোটরসাইকেলের নম্বরপ্লেট ও ৪টি পানির পাম্পের মটর উদ্ধার করা হয়।

চোরেরা হলো, মোটর সাইকেল চোরের মূল হোতা মোঃ নাছির (২৩), পিতা-মৃত এনু মিয়া, মাতা-সখিনা বেগম, সাং-সুলতাপুর (খান পাড়া), ও তার সহযোগী ২। সুমন মিয়া (২৭), পিতা-মৃত সুদন মিয়া, মাতা-মাহমুদা বেগম, সাং-কান্দিপাড়া, থানা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর, ৩। ওমর সানি ওরফে শিমুল (২৫), পিতা-শওকত আলী, মাতা-হনুফা বেগম, সাং-বটতলা, (যাত্রাপুর হাজী বাড়ি), থানা-আশুগঞ্জ, ৪। নাঈম (২০), পিতা-শফিকুল ইসলাম, মাতা-মমতাজ বেগম, সাং-শিলাউড় (উত্তর পাড়া), ৫। আলমগীর চৌধুরী (৩০), পিতা-আলফাজ চৌধুরী, মাতা-তহুরা বেগম, সাং-চান্দপুর (মধ্যপাড়া মাছিহাতা), ৬। মিজান মিয়া (২৮), পিতা-আবু মিয়া, মাতা-জাহানারা বেগম, সাং-দক্ষিণ জগতসার, ৭। মৌলানা মোঃ কাউছার মিয়া (৫০), পিতা-মৃত ডাক্তার সিদ্দিকুর রহমান, মাতা-মৃত নুরজাহান বেগম, সাং-দক্ষিণ জগতসার, ৮। হুসেন মিয়া (৪০), পিতা-মন মিয়া, মাতা-জাহেরা খাতুন, সাং-উড়শিউড়া, (দক্ষিণ পাড়া), ৯। নুরুল আমিন প্রঃ রুহুল আমিন চৌধুরী (২৯), পিতা-মদন চৌধুরী, সাং-চান্দপুর (মধ্যপাড়া), সর্বথানা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর।

৯ চোরের মধ্যে অন্যতম ২ চোর

পুলিশের যেসব অফিসাররা অভিযান চালিয়ে চোরদের গ্রেফতার করেছেন তারা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম এর নেতৃত্তে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) কাজী মাসুদ ইবনে আনোয়ার পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) রুহুল আমীন, এসআই(নিরস্ত্র)/হুমায়ূন কবির, এসআই/ আমীর হামজা, এসআই/ জয়নাল আবেদীন, এসআই/ মোঃ বাবুল হোসেন, এসআই/ আব্দুল মোত্তালেব, এএসআই/জাহিদুল ইসলাম, এএসআই/শহিদুল ইসলাম, এএসআই/আছহাব উদ্দিন, এএসআই/কালোমনি চাকমা সঙ্গীয় ফোর্সসহ

চোরদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর এলাকাসহ ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও অন্যান্য জেলা হইতে তাদের সহযোগীদের চোরাই মোটর সাইকেলসহ বিভিন্ন ধরনের মালামাল সুকৌশলে চুরি করে স্বল্প মূলে ক্রয়-বিক্রয় করে থাকে। উক্ত ঘটনার জড়িত আসামীদের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানার মামলা নং-১৪, তাং-০৬/০৬/২০২১ইং, ধারা-৩৭৯/৩৮০/৪১১/৪১৩/৪১৪ পেনাল কোডে রুজু করা হইয়াছে। এই ব্যাপারে অভিযান অব্যাহত আছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।