আখাউড়া ইউপি সদস্যের হামলায় হাতের আঙুল হারানোর উপক্রম যুবলীগ নেতার

১০ জুন, ২০২১ : ১০:৫৬ অপরাহ্ণ ১৫২৯

আশরাফুল মামুন: ব্রাহ্মণবাড়িয়া আখাউড়ায় এক ইউপি সদস্য ও তার লোকজনের পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আগে থেকে ওৎ পেতে অতর্কিত হামলায় মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন মনিয়ন্দ ইউপির যুবলীগ নেতা মোঃ রফিকুল ইসলাম সবুজ। আজ বৃহস্পতিবার( ১০ জুন) বিকেল ৩ টার সময় উক্ত ইউপির খারকোট এলাকায় এই অতর্কিত হামলার নের্তৃত্ব ছিলেন উক্ত ইউনিয়ন এর ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য মোঃ নূরে আলম। হামলার সময় দা ও কিরিস দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে তাকে মারাত্মক ভাবে জখম করা হয়েছে। বা হাতের ৩ টি আঙ্গুল ৭০ ভাগ কেটে যাওয়ায় আঙ্গুল গুলো টিকিয়ে রাখা চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে নূরে আলম মেম্বার কে গ্রেফতার করেছে।

এলাকাবাসী ও প্রত্যাক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে জানা গেছে, সবুজ ঐ এলাকার সম্ভাব্য মেম্বার পদপ্রার্থী। এ নিয়ে বর্তমান মেম্বার নূরে আলমের সাথে সবুজের কিছুদিন আগে তর্ক বিতর্ক হয়েছিল এবং তাকে হুমকি দিয়েছিল। এর জের ধরে আজ সবুজ খারকোট গ্রাম থেকে দাওয়াত খেয়ে একা কর্নেল বাজার আসার পথে তার উপর অতর্কিত হামলা করা হয়। হামলাকারীরা আগে থেকেই ওঁৎ পেতে ছিল। সবুজের সারা শরীরে দা এর কোপ পাওয়া গেছে। এসময় একজন হামলাকারী সবুজ কে শুইয়ে গলায় কিরিস দিয়ে গলা কাটার চেষ্টা করলে একই ইউপির তুলাইশিমুল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবু কাউছার ভূইয়া ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে সবুজ কে প্রানে বাঁচান। জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসকগন ৪ ঘন্টা অপারেশন করে তার বা হাতের আঙুল টিকিয়ে রাখার আপ্রান চেষ্টা করছেন।

এবিষয়ে জানতে চাইলে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মিজানূর রহমান জানান, হামলার খবর পেয়ে পুলিশ দ্রুত অভিযান চালিয়ে ৪নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ নূরে আলম কে গ্রেফতার করেছে এবং বিষয়টি তদন্ত পূর্বক তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা প্রক্রিয়াধীন আছে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।