স্বাভাবিক হলো ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন

১৩ নভেম্বর, ২০২১ : ৬:৫৫ অপরাহ্ণ ১৯৫

তেপান্তর রিপোর্ট: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হেফাজতে ইসলামের তাণ্ডবে বিধ্বস্ত রেলওয়ে স্টেশনটিতে দীর্ঘ সাড়ে ৭ মাস পর থামলো আন্তনগর ট্রেন, ফলে জনমনে স্বস্তি ফিরেছে। ঢাকা কমলাপুর রেল স্টেশনের প্রান্ত থেকে উদ্বোধক হিসেবে ছিলেন রেল মন্ত্রণালয়ের রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এমপি এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন থেকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী। শনিবার বেলা সাড়ে ১১টায় কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী জয়ন্তিকা এক্সপ্রেস ট্রেনটি উদ্বোধক হিসেবে ছিলেন রেলমন্ত্রী।

দুপুর দেড়টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশন থেকে সিলেটগামী জয়ন্তিকা ট্রেনটি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় থামলে সেখানে উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি র.আ.ম উবায়দুল মোক্তাদির চৌধুরী এমপি বলেন, হেফাজতের তাণ্ডবে রেল স্টেশনের যা ক্ষতি হয়েছে স্টেশন চালু করতে আরো সময় লাগতো কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী ও রেলমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে বিদেশ থেকে মালামাল আনিয়ে ট্রেন চালু করে দিয়েছেন।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এমন ধ্বংসযজ্ঞ যেন আর না ঘটে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষদের হুশিয়ার ও সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন।

দীর্ঘদিন পর রেল চালু হওয়ায় যাত্রীদের মনে স্বস্তি প্রকাশ করে নদী নিরাপত্তার সামাজিক সংগঠন নোঙর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি শামীম আহমেদ বলেন, দীর্ঘ প্রায় আট মাস পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলস্টেশনে ট্রেন থামছে অবশ্যই তা স্বস্তির বিষয়।

আজ আমাদের কষ্টের লাঘব হয়েছে। রেল আমাদের জাতীয় সম্পদ। জাতীয় সম্পদ রক্ষার দ্বায়িত্ব কিন্তু সবার উপরই বর্তায়। এধরনের ধ্বংসাত্মক ঘটনা যেনো পুনরায় না ঘটে দলমতের উর্ধ্বে থেকে এসব ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে প্রশাসন এবং জেলাবাসীকে। উল্লেখ্য, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধিতা করে গত ২৬-২৮ মার্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ব্যাপক তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলামের কর্মী-সমর্থকরা। তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশন, পুলিশ সুপারের কার্যালয়, সিভিল সার্জনের কার্যালয়, পৌরসভা কার্যালয়, জেলা পরিষদ কার্যালয়, সুর সম্রাট দি আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন ও জেলা গণগ্রন্থাগারসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।