ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইজতেমার আয়োজনকে বাধা দিতে ৩ ব্যক্তিকে আটকের অভিযোগ

২২ ডিসেম্বর, ২০২১ : ৯:৫০ অপরাহ্ণ ৭৫৫

তেপান্তর রিপোর্ট: ইজতেমাকে কেন্দ্র করে তাবলীগের ৩ ব্যক্তিকে আটক করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা পুলিশ।
আটককৃতরা হলেন, সদরের রামরাইল এলাকার মাওলানা মাসুদ (৪৫), ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের পূর্ব পাইকপাড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তানভীর হক পবন (৪৮) ও পশ্চিম পাইকপাড়ার নজরুল ইসলাম (৫০)।

বুধবার সকাল আনুমানিক ১০টায় মাসুদকে শহরে মেড্ডা এলাকার মার্কাজ মসজিদ থেকে আটক করা হয়, পরবর্তীতে বেলা ১২টায় পবন ও নজরুল ইসলামকে ফোনে থানায় ডেকে এনে আটক করে রাখা হয়। এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত (রাত ৯টা) তারা সবাই থানায় আটক ছিলেন।

থানায় গিয়ে দেখা যায়, মাসুদ ও নজরুল ইসলামকে আলাদা একটি কক্ষে বাইরে থেকে দরজা বন্ধ করে আটক করে রাখা হয়। আর তারভীর হক পবনকে থানার সেকেন্ড অফিসারের রুমে বসিয়ে রাখা হয়।

পরবর্তীতে ওসি (তদন্ত) কাজী মাসুদ ইবনে আনোয়ারের অনুমতিক্রমে আটককৃতদের সাথে কথা বলেন তেপান্তরের প্রতিবেদক।

এবিষয়ে আটককৃত মাসুদ তেপান্তরকে জানিয়েছেন, পুলিশ কোন কিছু না বলেই হঠাৎ তাকে উঠিয়ে আনা হয়েছে। কোন প্রকার নোটিশ ছাড়া বা কোন তথ্য না দিয়েই তুলে আনা হয়েছে। আনার পর ইজতেমা সমন্ধে তারা বিভিন্ন তথ্য জানতে চাইছেন এবং পুলিশ বিভিন্ন ভাবে আমাদের ভয় ভীতি দেখাচ্ছে।

এবিষয়ে তানভীর হক পবন বলেন, আমাকে বেলা ১২টায় থানা থেকে ফোন করে থানায় আনা হয়। থানায় আনার পর আমাদের সবার মোবাইল নিয়ে যাওয়া হয়। শীতের পোশাক দেওয়া হচ্ছেনা। এমনকি বাথরুমেও যেতে দেওয়া হচ্ছে না। যেহেতু ২৩ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ইজতেমা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা এবং আমরা ইজতেমার বিভিন্ন দায়ীত্বে আছি তাই ইজতেমা যেন সফল না হয় এ কারণে আমাদের থানায় এনে আটক করে রাখা হয়েছে। কারো সাথে যোগাযোগ করতে দিচ্ছেননা। এছাড়া আটককৃত নজরুল ইসলাম অসুস্থ হয়ে পড়েছেন, তিনি স্বাভাবিকভাবে কথা বলতে পারছেন না।

আটকের কারণ জানতে চাইলে সদর থানার ওসি এমরানুল ইসলাম তেপান্তরকে জানান, তাদের আটক করা হয়নি, জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দিনভর কি বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মার্কাজের বিভিন্ন বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। তবে সকালে কাউকে আটক করা হয়নি।

 

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।