জেল থেকেই ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মনির

৩১ ডিসেম্বর, ২০২১ : ১:২১ অপরাহ্ণ ৩৮৮

তেপান্তর রিপোর্ট: জেলহাজতে প্রার্থী। কিন্তু তিনি লড়ছেন নির্বাচনে। তার পক্ষে নির্বাচনী মাঠে চলছে সমর্থকদের প্রচার-প্রচারণা। হচ্ছে মাইকিং। লাগনো হয়েছে পোস্টার, বিলি হচ্ছে লিফলেট। এমনই ঘটনা ঘটেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ৭নং তালশহর পূর্ব ইউনিয়নে।
জেল থেকেই নির্বাচনে অংশ নেওয়া ওই প্রার্থীর নাম মনিরুল ইসলাম মনির। তিনি আগামী ৫ই জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ৭নং তালশহর পূর্ব ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ‘চশমা’ প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদের জন্য লড়বেন।

এদিকে হেফাজত তান্ডবের মামলায় আসামি হয়ে তিনি এখনও জেলে। নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বীতায় জেল থেকেই অংশ নিয়েছেন তিনি।
জানা গেছে, গত ২৬ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঘটে যাওয়া তান্ডবের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। বর্তমানে তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কারাগারে আছেন।

এদিকে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি মনিরকে নিয়ে ভোটারদের মধ্যে চলছে নানা আলোচনা। তার পক্ষে নির্বাচনী মাঠে আত্মীয়-স্বজনরা চালাচ্ছেন প্রচার-প্রচারণা। মনিরের নির্বাচনী পোস্টারের বিশেষণে লেখা তিনি কারাবন্দী, সৎ, নির্ভীক, নিষ্ঠাবান, সমাজসেবক, গরীব-দুঃখী ও মেহনতি মানুষের বন্ধু।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মনিরের নিজের ডেকোরেশন এর ব্যবসা আছে। হেফাজতের তান্ডবের দিন লোকজন তার ব্যবসার জন্য রাখা বাঁশ নিয়ে যেতে থাকলে মনির তাদের বাধাগ্রস্ত করে এবং অনেকের হাত থেকে বাঁশ কেড়ে নিতে দেখা যায় ওইদিন কিন্তু তাকেই হেফাজতের মামলায় আসামি করা হয়েছে। হেফাজতের মামলায় একাধিকবার জামিন হলেও প্রতিবার নতুন মামলায় জড়িয়ে তাকে আটক রাখা হচ্ছে বলেও জানান অনেকে। তাই তাকে নির্বাচিত করে কারামুক্ত করতে চান তারা।

মনিরুল ইসলাম এর স্ত্রী তাসলিমা আক্তার বলেন, আমার স্বামী চেয়ারম্যান প্রার্থী হওয়ায় হেফাজতের মিথ্যা মামলা থেকে জামিন পাওয়ার পরও জেল গেইট থেকে উনাকে আবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মনিরুল ইসলাম কেমন মানুষ তা এই গ্রামের সবাই জানে। ব্যালটের মাধ্যমেই অন্যায়ের নীরব প্রতিবাদ জানাবে তালশহরের মানুষ। যারা গায়ের জোরে আমার স্বামীকে ভোট থেকে সরাতে চেয়েছিল, যারা টাকার জোরে উনাকে জেলে আটকে রেখেছে জনগণ তাদের লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দিবে ইনশাআল্লাহ।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়ামিন-হোসেন বলেন, মনিরুল ইসলাম মনিরের নির্বাচনে অংশ নেওয়া নিয়ে আইনি কোন বাধা-নিষেধ নেই। মামলা যে কোন ব্যক্তির নামেই হতে পারে। সে দায়ী কিনা তা জানা যাবে রায়ের পর।

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।