Tepantor

১৪৪ ধারার মধ্যেই ককটেল ফাটিয়ে শক্তির মহড়া,পুলিশ বলছে তদন্ত চলছে

১০ জানুয়ারি, ২০২২ : ৪:৪৩ অপরাহ্ণ ১২৮০

তেপান্তর রিপোর্ট: ৮ জানুয়ারি বিএনপি ও ছাত্রলীগের সমাবেশকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে ১৪৪ ধারা জারির মধ্যেই এক আবাসিক এলাকায় কয়েকটি ককটেল বিষ্ফোরন ঘটিয়ে ও অস্ত্র নিয়ে শক্তির মহড়া দিয়েছে শহরের দক্ষিণ মৌড়াইলের অভি (৩০) নামে এক দুষ্কৃতিকারী। ওই এলাকার মৃত নিয়াজ আহাম্মেদের ছেলে সে। এঘটনায় এখন পর্যন্ত পুলিশ তাকে আটক করেনি। জনসমুক্ষে এই ঘটনা ঘটার ৩ দিন পার হলেও পুলিশ বলছে তদন্ত চলছে।

Tepantor

দক্ষিণ মৌড়াইলের জীবন মিয়ার ছেলে ইমরান মিয়ার সাথে পূর্ব বিরুধের জের ধরে এই ঘটনা ঘটে। ককটেল বিষ্ফোরনের আগে ওই দিন দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজের সামনে ইমরানের উপর হামলা করে অভি। পরে সেদিন সন্ধ্যায় দক্ষিণ মৌড়াইলের ইমরানের বাড়ির সামনে গিয়ে ককটেল বিষ্ফোরন ঘটায়। ওই সময় দুইটি ককটেল বিষ্ফোরন হয়, অবিষ্ফোরিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় আরও দুটি ককটেল। এঘটনায় থানায় এজাহার দিয়েছেন ভুক্তভোগী ইমরান।

এজাহার থেকে জানা যায়, পূর্ব বিরুধের জেরে ৮ জানুয়ারি দুপুরে যখন ইমরানের উপর হামলা করে অভি তখন এর বিচার চেয়ে এলাকার সর্দার-মাতব্বরদের কাছে নালিশ করেন ইমরান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সন্ধ্যা পৌনে ৮টায় ইমরানকে মারার উদ্যেশে তার বাড়ির সামনে লাঠিসোটা, হকিষ্টিক,রামদা ও পিস্তলসহ দলবল নিয়ে একটি মাইক্রোতে করে যায়। গিয়ে ইমরানের বাড়ির দেওয়ালে ককটেল বিষ্ফোরন ঘটায়। এক পর্যায়ে ইমরানের বুকে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে মেরে ফেলার চেষ্টা করে অভি। তখন আশপাশের লোকজন এসে ইমরানকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে এলাকাবাসী ৯৯৯-এ ফোন করলে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

এবিষয়ে ইমরান তেপান্তরকে বলেন, অভি একজন সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তার কারনে এলাকার মানুষ স্বাভাবিক ভাবে জীবন যাপন করতে পারছেনা। ঘটনার পর ৩ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ এখনো তাকে গ্রেফতার করেনি।

এবিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ওসি ইমরানুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি তেপান্তরকে বলেন, “ঘটনার তদন্ত চলছে, এখনো মামলাটি এফআইআর হয়নি।”

Tepantor

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।