Tepantor

কসবায় দলীয় প্রতীক ছাড়া নির্বাচন, মন্ত্রীর নাম ভাঙ্গিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থীর প্রচারণা

২৭ জানুয়ারি, ২০২২ : ৫:০৩ অপরাহ্ণ ২৩৭

তেপান্তর রিপোর্ট: আগামী ৩১ জানুয়ারী ৬ষ্ঠ ধাপে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ৭টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচনকে উৎসবমূখর করতে উপজেলায় দলীয় প্রতীক ছাড়া উন্মুক্তভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে শেষ মূহুর্তে জমে উঠেছে প্রচার-প্রচারণা। তবে কসবা ৭ নং পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুর রহমান মানিক নিজেকে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও আইনমন্ত্রী এডভোকেট আনিসুল হকের পছন্দের প্রার্থী উল্লেখ করে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

Tepantor

বুধবার বিকেলে উপজেলার আকছিনা পূর্বপাড়া কসবা ওয়েস্ট পাবলিক স্কুল মাঠে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এই দাবী করে প্রচারণা চালান এবং নিজের পক্ষে ভোট চান।

এ সময় তিনি বলেন, নির্বাচনে আমি বিজয়ী হলে মন্ত্রীর জয়, আর পরাজিত হলে মন্ত্রী কষ্ট পাবেন কারণ তিনি আমাকে সন্তানের মত ভালবাসেন। মন্ত্রী অন্যান্য ইউনিয়নের আর কাউকে নিয়ে কিছু বলেন নাই। কেবল এই ইউনিয়ন থেকে আমার কথা বলেছেন এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কি হতে পারে।

সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য রুহুল আমীন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট রাশেদুল কায়সার ভুইয়া জীবন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও কসবা পৌরসভার মেয়র এম.জি হাক্কানি, রুহুল আমিন ভুইয়া বকুল প্রমূখ।

আকছিনা পূর্বপাড়া কসবা ওয়েস্ট পাবলিক স্কুল মাঠে আয়োজিত সমাবেশে উপস্থিত নেৃতৃবৃন্দ।

এদিকে দলীয় প্রতীক ছাড়া উন্মুক্ত নির্বাচনে একজন প্রার্থী নিজেকে মন্ত্রীর পছন্দের প্রার্থী উল্লেখ করায় অন্যান্য প্রার্থীর মাঝে হতাশার সৃষ্টি হয়েছে। এতে সাধারণ ভোটারদের মাঝেও বিরুপ প্রতিক্রীয়া দেখা দিয়েছে। এছাড়াও চলমান করোনা সংকট বিবেচনায় সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন বিধি নিষেধ আরোপ করা হলেও তা তোয়াক্কা না করে হাজারো মানুষের সমাগম ঘটিয়ে সভা করায় জনমনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মোঃ আবু ইউসুফ ভুইয়া মাষ্টার জানান, আমার প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী মন্ত্রীর কথা বলে মাঠে ঘাটে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এতে মন্ত্রীর ভাবমূর্তি নষ্ট হবে বলে আমি মনে করি। কারণ মন্ত্রী আমাদেরকে বলেছেন, এই নির্বাচন সম্পূর্ণভাবে নিরপেক্ষ অনুষ্ঠিত হবে। যদি কেউ বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

এছাড়াও স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, চেয়ারম্যান প্রার্থী মানিক মিয়া নিজেকে মন্ত্রীর পছন্দের প্রার্থী বলে প্রচারণা চালালেও এ বিষয়ে মন্ত্রীর কাছ থেকে আমরা কোন নির্দেশনা পাইনি। এটি একটি অপপ্রচার।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুর রহমান মানিক বলেন, আইনমন্ত্রী আমাকে অনেক স্নেহ করেন। সম্প্রতি তিনি একটি অনুষ্ঠানে আমাকে ভাল উল্লেখ করে আমাকে ভোট দেয়ার জন্য স্থানীয়দের বলেছেন। তবে অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি মন্ত্রীর ঘোষিত প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছেন।

 

এনআইএ/এসকে

Tepantor

তেপান্তরে প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।